ক্ষ্যাপা কুকুরের দলবদ্ধ আক্রমনের আতংকে হবিগঞ্জ সদর! আক্রান্ত অর্ধশতাধিক

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি-

হবিগঞ্জে গত ৪৮ ঘণ্টায় পাগলা কুকুরের কামড়ের শিকার হয়েছেন পথচারী শিক্ষার্থী, নারী, শিশুসহ প্রায় অর্ধশতাধিক। রাস্তায় মোটরসাইকেল, রিক্সা অথবা সাইকেল দেখলেই দলবেধে আক্রমনাত্মক ভঙ্গিতে পিছু নিচ্ছে খ্যাপাটে কুকুরের দল।

সম্প্রতি মারাত্মকভাবে পাগলা কুকুরের উপদ্রব বেড়েছে। প্রায় এলাকায়ই কুকুর পথচারীদের ধাওয়া করে। এসব ঘটনায় গতি হারিয়ে সাইকেল মোটরসাইকেল থেকে পড়ে  অনেক পথচারী হচ্ছেন দুর্ঘটনার শিকার । আবার অনেক পথচারীকে কামড়ে আহত করছে কুকুরের দল। সবমিলে পাগলা কুকুরের আতংক ছড়িয়ে পড়েছে এলাকাজুড়ে।

রোববার রাত থেকে সোমবার বিকেল পর্যন্ত শহরের ইনাতাবাদ, শায়েস্তানগর এড়ালিয়া সড়ক এবং শহরতলীর বড়বহুলা, তেঘরিয়া, পইল, এড়ালিয়াসহ বিভিন্ন এলাকার  প্রায় অর্ধশতাধিক মানুষ কুকুরের কামড়ে আক্রান্ত হয়েছেন।

আহতরা হচ্ছেন- হিরেন্দ্র দেব (৬০), মানিক চান (৭০), রাহুল (১৩), সিফাত (৬), নাদিয়া (২), রিফা আক্তার (১০),আব্দুল করিম (৫৫), নানু মিয়া (৩৫), রবিউল (১০), সুজন (৩০), তানহা (৫), সানিয়া বেগম (৬৫), তোফাজ্জল (৬০), মোর্শেদা (১২), তোহা (২৪), করিমন (৩৫), জাহেরা আক্তার (১১), মনির (১২), খেলু মিয়া (৬), জাবের আহমদ (২০), রজব আলী (৩৫), রিফা (১৮), আনোয়ারা বেগম (৪৫) ও শিমু বেগম (১৫) শোহ আরও অনেকে ।

এদিকে, আক্রান্তদের  চিকিৎসা দিতে  হিমশিম খাচ্ছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

সদর আধুনিক হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. বজলুর রহমান জানান, রোববার রাত থেকে সোমবার সকাল পর্যন্ত প্রায় ৩০/৩৫ জন  সদর হাসপাতালে এসে চিকিৎসা নিয়েছেন। হাসপাতালে পর্যাপ্ত ইনজেকশন না থাকায় অধিকাংশ রোগীকেই বাইরে থেকে তা আনতে হচ্ছে। তাদের চিকিৎসা দিতে রীতিমতো ডাক্তার, নার্সদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

Dog-Bite-scared-man

সাধারন মানুষের অভিযোগ , ‘বেওয়ারিশ পাগলা কুকুর নিধনের ব্যাপারেও উদাসীন পৌর কর্তৃপক্ষ!’ তবে পৌর কতৃপক্ষ এসব অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে বলেছেন, কিছু দিন পূর্বে পৌর কর্তৃপক্ষ ২৭০টি পাগলা কুকুর মেরেছে। বছরে এভাবে দুইবার কুকুর নিধন অভিযান চালানো হয়।

এ  প্রসঙ্গে হবিগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র দিলীপ দাশের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, ‘পৌরসভার পরিষদের সঙ্গে কথা বলে তিনি আবারো দ্রুত পাগলা কুকুর নিধনের উদ্যোগ নেবেন।’