ফটিকছড়িতে ইমামতি করার সময়ে পেছন থেকে পীরকে ছুরিকাঘাত

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি – চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে আশরাফাবাদ দরবার শরীফ মসজিদে নামাজরত এক পীরকে ছুরিকাঘাত করেছে এক যুবক। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার ফটিকছড়ির পাইন্দং কারবাল্লাহ টিলায় অবস্থিত দরবার শরীফের মাজার মসজিদে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই এলাকায় থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে।

ওই পীরের নাম শাহ আলম নঈমী (৬০)। মাগরিবের নামাজ আদায়কালে তাকে পেছন থেকে ছুরিকাঘাত করা হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, পীর শাহ আলম নঈমী মাজার মসজিদে মাগরিবের নামাজে ইমামতি করছিলেন। এ সময় পেছন থেকে এক যুবক তার পিঠে ছুরিকাঘাত করে। সঙ্গে সঙ্গে মুসল্লিরা হামলাকারী ছালাউদ্দিনকে (২৭) আটক করে গণপিটুনি দেয়।

pir-hamlaএ খবর ছড়িয়ে পড়লে পীরের ভক্তরা সেখানে এসে ভীড় জমান। আহত পীরকে প্রথমে নাজিরহাটস্থ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এবং পরে চমেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। খবর পেয়ে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে যেতে চাইলে পীরের ভক্তরা তাতে বাধা দেন। পরে অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আটক যুবককে জনতার হাত থেকে উদ্ধার করা হয়।

হামলাকারী যুবক একই ইউনিয়নের পাইন্দং গ্রামের মিয়াজি বাড়ির নুর মুহাম্মদের ছেলে।

ফটিকছড়ি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ইউছুফ মিয়া জানান, পরিস্থিতি সামাল দিতে অতিরিক্ত পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে প্রবেশ করতে হয়েছে।