স্ত্রীর মোবাইলে গোয়েন্দাগিরি করায় স্বামীর জরিমানা

news_picture_48221_wifes-mobile-2


চিত্র বিচিত্র ডেস্কঃ

সন্দেহের জেরে স্ত্রীর মোবাইলে ‘নজরদার’ সফ্‌টওয়্যার ঢুকিয়ে দিয়েছিলেন স্বামী। সেই অপরাধে ওই স্বামীর ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভারতের হাওড়ার সাইবার অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনাল। জরিমানার এ টাকা ক্ষতিপূরণ হিসেবে তুলে দিতে হবে স্ত্রীর হাতে।

এ রায়ের পর সাইবার দুনিয়ায় ব্যক্তিগত জীবনের পরিধি নিয়েও আলোচনা শুরু হয়েছে। সাইবার বিশেষজ্ঞদের মতে, স্বামী-স্ত্রী হলেও অনুমতি ছাড়া সাইবার দুনিয়ায় একে-অন্যের প্রোফাইলে ঢুকতে পারেন না।অনুমতি ছাড়া স্বামী স্ত্রীর প্রোফাইলে বা স্ত্রী স্বামীর প্রোফাইলে ঢুকলে তা ‘হ্যাকিং’ বলেই গণ্য করা হবে।

এদিন রায়ের প্রতিলিপি হাতে পাওয়ার পর ওই যুবতীর বক্তব্য, ‘আমার চরিত্রে কালি ছিটাতে হ্যাক করা হয়েছিল। সেটা প্রমাণ করতেই এতদিন লড়ছিলাম। আদালত আর আমার কৌঁসুলির কাছে আমি কৃতজ্ঞ।

কয়েক বছর আগে হাওড়া-শিবপুরের এক যুবতীর সঙ্গে সালকিয়ার ওই যুবকের বিয়ে হয়। বনিবনা না হওয়ায় বাপের বাড়িতে ফিরে যান ওই যুবতী। বিবাহ-বিচ্ছেদের চিঠি মারফত এই ‘হ্যাকিং’-এর কথা জানতে পেরেই ওই যুবতী আইনজীবীর সঙ্গে পরামর্শ করে রাজ্য সাইবার অ্যাপিলেট ট্রাইব্যুনালের দ্বারস্থ হন।

তিন বছর ধরে শুনানি চলার পর সম্প্রতি রায় দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল বা সাইবার আদালত। আদালতের নির্দেশ, রায় ঘোষণার এক মাসের মধ্যে ক্ষতিপূরণের টাকা দিতে হবে এবং আদালতকে জানাতে হবে লিখিত ভাবে। এ নির্দেশ যাতে যথাযথভাবে পালন করা হয় তার নজরদারি করতে হবে হাওড়ার পুলিশ কমিশনারকে।