‘গুরুত্বর মানসিক রোগে আক্রান্ত ডোনাল্ড ট্রাম্প’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক– যুক্তরাষ্ট্রের মনোবিজ্ঞানীদের একটি দল জানিয়েছে, ডোনাল্ড ট্রাম্প গুরুত্বর মানসিক রোগে আক্রান্ত এবং তিনি দেশ চালাবার অযোগ্য।  খবর- ইন্ডিপেনডেন্ট ও বিবিসির

4bmt74e5f11ba2lw8s_800C450মার্কিন একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে এক সেমিনারে ৩৫ সদস্যের মনোবিজ্ঞানী দলটি বলে, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বিপদজনক মানসিক পরিস্থিতিতে রয়েছেন। অ্যান্টিসোশ্যাল পার্সোনালিটি ডিজঅর্ডার রয়েছে তার। তিনি ভীষণ আত্মকেন্দ্রিক। হুট করে সিদ্ধান্ত নেওয়ার প্রবণতা রয়েছে তার মধ্যে; যেটি মার্কিন প্রেসিডেন্ট হিসেবে একদমই থাকা উচিত নয়।

কেন এখন হঠাৎ এই দাবী করলেন মনোবিজ্ঞানীরা? এই প্রশ্নের উত্তরে মনোবিজ্ঞানী জন গার্টনার বলেন, ‘প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প আমেরিকার পক্ষে কতটা বিপজ্জনক, সেকথা জনসাধারণকে জানানো খুবই প্রয়োজন।’

সহমত পোষণ করেন সেমিনারে অংশ নেয়া নিউইয়র্ক বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক তথা প্রখ্যাত মনোবিজ্ঞানী জেমস গিলিগান। তিনি ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ‘সমাজে সবচেয়ে বিপজ্জনক ব্যক্তি’ হিসেবে উল্লেখ করেন।

গিলিগান বলেন, ‘এই সাধারণ ব্যাপার বোঝার জন্য কাউকে মনোবিজ্ঞানী হবার প্রয়োজন নেই। কিংবা পঞ্চাশ বছর ধরে মনোবিজ্ঞান অধ্যয়নেরও দরকার নেই।’

আরেক মনোবিজ্ঞানী জুডিথ হারমান মনে করেন, ট্রাম্পের যে মানসিক সমস্যা রয়েছে সেটি বোঝার জন্য প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর তার কীর্তিকলাপে বোঝা যায়। সাধারণ মানুষই বলে দিতে পারবেন যে বর্তমান মার্কিন প্রেসিডেন্ট এই পদে থাকারই যোগ্য নন।