SOMOYERKONTHOSOR

অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন পেট্রোলের আগুনে দগ্ধ সেই নারী

কৃষ্ণ কর্মকার, বাউফল প্রতিনিধি: টানা ১১ দিন মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন আয়শা আক্তার (২৫) নামের সেই নারী।

গতকাল শনিবার সন্ধা সারে ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজের বার্ণ ইউনিটে সে মারা যায়। আয়শা পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার কাছিপাড়া ইউনিয়নের কারখানা গ্রামের মামুন আকনের স্ত্রী। মামুন আকনকে মাদকে সেবনে বাধাঁ দেওয়ায় স্ত্রী আয়শার গায়ে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে।

উল্লেখ্য, শশুর বাড়ি থেকে মাদক কেনার টাকা আনার জন্য প্রায়ই স্ত্রীকে চাপ প্রয়োগ করতেন মামুন আকন (৩২) নামের পাষন্ড স্বামী। কিন্তু স্ত্রী আয়শা এর প্রতিবাদ করতেন এবং স্বামীকে মাদক সেবনে বাঁধা দিতেন। প্রতিদানে স্ত্রীকে প্রায়ই মার খেতে হত। সর্বশেষ ১১ এপ্রিল, মঙ্গলবার সকালে মামুন শশুর বাড়ি থেকে ২০ হাজার টাকা এনে দিতে বললে অপারগতা প্রকাশ করেন আয়শা। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্বামী বেদম মারধর করেন তাকে।

এতে তিনি অচেতন হয়ে ঘরের মেঝেতে পড়ে থাকেন। দ্বিতীয় দফায় ওই দিন রাত আটটার দিকে তার শরীরে পেট্রোল ঢেলে আগুন দিয়ে মেরে ফেলার চেষ্টা চালায় স্বামী। আয়শার ডাক-চিৎকার শুনে স্থানীয়রা এসে তাকে উদ্ধার করেন। ততক্ষনে মাথা ও মুখের এক পাশ ব্যতীত শরীরের বাকি সব অংশ পুড়ে যায়। পরে আগুনে দ্বগ্ধ আয়শাকে প্রথমে বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে ওই রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে পাঠান।

এ ঘটনায় গত ২০ এপ্রিল বৃহস্পতিবার বিকেলে ওই নারীর বাবা আবু বক্কর সিকদার বাউফল থানায় পাঁচজনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

বাউফল থানার ওসি আযম খান ফারুকী সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, আসামিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা অব্যাহত আছে।’