‘বাল্যবিবাহ নিরোধ বিশেষ আইন থাকলে অর্থনৈতিক উন্নয়ন ক্ষতিগ্রস্ত হবে’

সময়ের কণ্ঠস্বর- বিশিষ্ট লেখক, কলামিস্ট ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ বলেছেন, বাল্যবিবাহ নিরোধ বিশেষ আইন থাকলে দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ক্ষতিগ্রস্ত হবে, শিক্ষার ওপর প্রভাব পড়বে, সামাজিক অগ্রগতি ব্যাহত হবে।

221202_163শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের হলরুমে এক সমাবেশে এ কথা বলেন তিনি। বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন ২০১৭ এর বিশেষ বিধান (১৯ নং ধারা) বাতিলের দাবিতে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম এ সমাবেশের আয়োজন করে।

আলোচনা সভায় অন্যান্যদের বক্তব্য রাখেন বাসদ এর সাধারণ সম্পাদক খালেকুজ্জামান, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সরকার ও রাজনীতি বিভাগের অধ্যাপক নাসিম আক্তার হোসাইন, সিপিবি নারী সেল এর আহ্বায়ক লক্ষ্মী চক্রবর্তী, আইনজীবী ও মানবাধিকার কর্মী ব্যারিস্টার সারা হোসেন, বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট এর আইনজীবী ব্যারিস্টার জ্যোর্তিময় বড়–য়া, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট এর সভাপতি ইমরান হাবীব রুমন, সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম এর সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসু, প্রগতিশীল চিকিৎসক ফোরাম এর সদস্য ডা. মনিষা চক্রবর্তী।

খালেকুজ্জামান বলেন, বেগম রোকেয়া আজ থেকে একশ বছর আগে বলেছিলেন মেয়েদেরকে ২২ বছরের আগে বিয়ে না দিতে। একজন নারীর স্বাধীন মানবিক সত্ত্বা বিকশিত হওয়ার সময় ও সুযোগ তাকে দিতে হবে। তাকে শিক্ষাপ্রাপ্ত হওয়ার সুযোগ দিতে হবে। বাংলাদেশের সংবিধানেও নারী-পুরুষ ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের সমান সুযোগ ও অধিকার রয়েছে। তাই আমরা দাবি করি এ সময়ের প্রেক্ষিতে বরং বিয়ের ন্যূনতম বয়স বাড়ানো উচিত। নারী-পুরুষ কাউকেই বরং ২৫ বছরের আগে বিয়ে না দেবার বিধান হতে পারে।