৩ উইকেট হারিয়ে দারুণ চাপে আয়ারল্যান্ড

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: আয়ারল্যান্ডের ডাবলিনে ত্রিদেশীয় সিরিজে স্বাগতিকদের বিপক্ষে শুরুটা ভালোই করেছে বাংলাদেশ। প্রতিপক্ষের বোলারদের বোলিং তোপে চাপে রয়েছে আইরিশরা।

শুক্রবার ম্যাচের দ্বিতীয় ওভারেই উইকেট তুলে নিয়েছেন বাংলাদেশের বিস্ময় বোলার মোস্তাফিজুর রহমান। পল স্টার্লিংকে শর্ট থার্ডম্যানে সাব্বির রহমানের ক্যাচে পরিণত করেন তিনি।

আগের ওভারেই মোসদ্দেক হোসেন ছেড়েছিলেন সহজ ক্যাচ। পরের ওভারে তার হাতেই বল তুলে দিয়েছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। দ্রুত পুষিয়ে দেওয়ার সুযোগ দুই হাতে কাজে লাগিয়েছেন তরুণ অফ স্পিনিং অলরাউন্ডার।

২১ রানে জীবন পাওয়া উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড ফিরেছেন ১ রান যোগ করেই। সহজ ফিরতি ক্যাচ ধরতে এবার কোনো ভুল করেননি মোসাদ্দেক। ৯ ওভার শেষে আয়ারল্যান্ডের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩৮ রান।

এরপর সাকিব আল হাসানের প্রথম ওভারে মিড উইকেট দিয়ে তাকে উড়িয়েছিলেন অ্যান্ডি বালবার্নি। পরের ওভারে ফিরে বাঁহাতি স্পিনার নিয়েছেন মধুর প্রতিশোধ। দারুণ এক ডেলিভারিতে উড়িয়ে দিয়েছেন বেলস।

২৪ বলে ওই এক ছক্কায় ১২ রান করে ফিরেন বালবার্নি। ১৫ ওভার শেষে আয়ারল্যান্ডের স্কোর ৬২/৩।

এর আগে টস জিতে স্বাগতিকদের ব্যাটিংয়ে পাঠান বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। এই সিরিজে প্রথম জয় তুলে নেওয়ার লক্ষ্যে একাদশে পরিবর্তন এনেছে টাইগাররা।

মেহেদী হাসান মিরাজের পরিবর্তে একাদশে ঢুকেছেন সানজামুল ইসলাম। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হয়েছে ২৭ বছরের এ বাঁহাতি স্পিনারের। বাংলাদেশের ১২৪তম ক্রিকেটার হিসেবে অভিষেক হলো ঘরোয়া ক্রিকেটের নিয়মিত পারফর্মার।

অন্যদিকে একটি পরিবর্তন এনেছে আয়ারল্যান্ডও। স্টুয়ার্ট থমসনের জায়গায় অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান এড জয়েসকে ফিরিয়ে এনেছে আয়ারল্যান্ড। চলমান সিরিজে আয়ারল্যান্ড ও বাংলাদেশের জন্য প্রথম জয় তুলে নেওয়ার ম্যাচ এটি। আইরিশদের সাথে টাইগারদের প্রথম ম্যাচটি ৩২তম ওভারে গিয়ে বৃষ্টিতে পণ্ড হয়। এই দুই দলই সিরিজের তৃতীয় দল নিউজিল্যান্ডের কাছে হেরেছে।

বাংলাদেশ একাদশ: তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, সাব্বির রহমান, মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, সানজামুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, মাশরাফি বিন মুর্তজা, মোস্তাফিজুর রহমান।

আয়ারল্যান্ড একাদশ: পল স্টারলিং, উইলিয়াল পর্টাররফিল্ড, এড জয়েস, নিয়াল ও ব্রেইন, এন্ড্রু বালবিরনি, গেরি উইলসন, কেভিন ও ব্রেইন, জর্জ ডকরেল, বেরি ম্যাককার্থি, টিম মুরতাঘ ও পেটার চেস।