মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে ভোলায় অস্ত্রের মুখে ধর্ষণের শিকার ৩য় শ্রেণীর ছাত্রী!

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি, সময়ের কণ্ঠস্বর –

ভোলার অস্ত্র ঠেকিয়ে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে ৩য় শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করার অভিযোগ উঠেছে জসিম নামের এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে। বৃহস্পতিবার বিকালে শিবপুর ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।

বর্তমানে শিশুটি ভোলা সদর হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। শিশুটি রতনপুর সরকারি প্রথমিক বিদ্যালয়ে ৩য় শ্রেণীর শিক্ষার্থী। এ ব্যাপারে ভোলা থানায় একটি মামলার দায়ের করা হয়েছে।

শিশুটির পারিবারিক সূত্রে জানা যায় যে, বৃহস্পতিবার (১৮ মে) বিকেলে সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের রতনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৩য় শ্রেণীর ছাত্রী (ভিকটিম) প্রতিদিনের মতো স্কুল থেকে বাড়িতে এসে ছাগল চরাতে যায়। ভিকটিম পাশের একটি কদম গাছ থেকে ফুল পাড়তে উঠে।

এসময় স্থানীয় মৃত নজির ড্রাইভারের ছেলে মো. জসিম ওই ছাত্রীকে ছুড়ি দেখিয়ে ভয় দেখায়। পরে ভিকটিম গাছ থেকে নিচে নেমে আসলে জসিম তার মোবাইলটি ভিকটিমের হাতে দেয়। ভিকটিম মোবাইল ফোনটি হাতে নিলে জসিম তার গলায় ছুরি ঠেকিয়ে পাশের ঝোপঝাড়ে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

পরে ভিকটিম অজ্ঞান হয়ে পড়ে। এসময় পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা এসে তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্ধার করে ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। বর্তমানে ভিকটিম হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে।

এলাকাবাসী এ ঘটনার সাথে জড়িত জসিমের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছেন।

ভোলা মডেল থানার ওসি মীর খাইরুল কবির সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, এঘটনায় ওই শিশুর পিতা বাদী হয়ে জসিমকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং ৩৯। আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ওসি মীর খাইরুল কবির বলেন, এঘটনায় ওই শিশুর পিতা বাদী হয়ে জসিমকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। যার মামলা নং ৩৯। আসামীকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।