অ্যালোভেরা ভেবে খেয়ে দেখাতে গিয়ে হিতে বিপরীত হল যুবতীর!

চিত্র বিচিত্র ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর: ভেবেছিলেন ইউটিউবে লাইভ ভিডিও ব্লগিংয়ে নেটিজেনদের দেখাবেন ভেষজ উদ্ভিদ অ্যালোভেরার উপকারিতা। কিন্তু তা করতে গিয়ে হিতে বিপরীত হল চীনের এক যুবতীর।

ঝ্যাং নামে ২৬ বছরের ওই যুবতী লাইভ ব্লগিংয়ে অ্যালো ভেরা খেয়ে দেখাতে গিয়েছিলেন ওই উদ্ভিদ স্বাস্থ্যের পক্ষে কতটা উপকারী। প্রথম কামড়ের পরে উদ্ভিদে দ্বিতীয় কামড় দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁর শারীরিক অস্বস্তি শুরু হয়। ভিডিওটিও হঠাৎ বন্ধ হয়ে যায়।

সংবাদমাধ্যম সূত্রে খবর, ঘটনার পরই ঝ্যাং–এর শরীরে ফোসকা এবং র্যাশ বেরোতে থাকে। তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এখন স্থিতিশীল ঝ্যাং। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, অ্যালোভেরা ভেবে মেক্সিকোয় উৎপন্ন হওয়া বিষাক্ত উদ্ভিদ অ্যাগেভ আমেরিকানা খেয়ে ফেলেছিলেন ঝ্যাং।

গবেষকরা জানিয়েছেন, ওই উদ্ভিদটি দেখতে প্রায় অ্যালোভেরার মতোই। পাওয়া যায় মেক্সিকোয়। অ্যাগেভ আমেরিকানা বাঁচে ১০ থেকে ৩০ বছর পর্যন্ত। ৬–১০ ফুট লম্বা উদ্ভিদের পাতাগুলি ধূসর–সবুজ রঙের।

অ্যালোভেরার মতো ওষধি উদ্ভিদ নয়, বিষাক্ত অ্যাগেভ আমেরিকানা মূলত ঘর সাজানোর কাজে ব্যবহার হয়। যদি কেউ এটা খেয়ে ফেলেন তাহলে তিনি অজ্ঞান হয়ে যেতে পারেন। তাঁর শরীরে ফোসকা এবং র্যাশ দেখা দেবে, যা ঝ্যাং–এর শরীরে হয়েছিল। এই উদ্ভিদ এমনকী পেটে গেলে মানুষের কিডনি এবং লিভারের ক্ষতি করতে পারে।

গবেষকদের পরামর্শ, না জেনে অযথা বিখ্যাত হতে গিয়ে নিজের বিপদ যেন ডেকে আনবেন না।