ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশি শ্রমিকের মৃত্যু, আতঙ্কে প্রবাসীরা

প্রবাসের কথা ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর: সিঙ্গাপুরে ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে এক বাংলাদেশি নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু হয়েছে। সিঙ্গাপুরের সংবাদমাধ্যম স্ট্রেইটস টাইমস জানিয়েছে, ওই শ্রমিক ৭ নম্বর ইশুন অ্যাভিনিউর একটি বাসায় থাকতো এবং তিবান গার্ডেনস এলাকায় কাজ করতো। গত ৩০ জুলাই জ্বর ও গলা ফোলা নিয়ে সে খু তেক পুয়াট হাসপাতালে (কেটিপিএইচ) ভর্তি হয়। চারদিন চিকিৎসার পর ৩ আগস্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সিঙ্গাপুরের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, ওই শ্রমিক সম্প্রতি সিঙ্গাপুরের বাইরে কোথাও যায়নি। এর মানে হচ্ছে সে সিঙ্গাপুরেই এই রোগে আক্রান্ত হয়েছে। তবে মন্ত্রণালয় ওই শ্রমিকের নাম প্রকাশ করেনি।

দেশটির গত ২৫ বছরের ইতিহাসে ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত হয়ে এটাই প্রথম মৃত্যু।

মন্ত্রনালয় সূত্রে জানা গেছে, সিঙ্গাপুরের বাসিন্দাদের মধ্যে ডিপথেরিয়া ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা খুবই কম। কারণ এদেশে ১৯৬২ সাল থেকে বাধ্যতামূলক টিকাদান কর্মসূচির আওতায় শিশুদের এই টিকা দেওয়া হয়। তবে এতোদিন বিদেশি শ্রমিকদের বেলা এ বিষয়ে কোনো বাধ্যকতা ছিলনা। কারণ এ টিকা সাধারণত বিভিন্ন দেশে শিশুকালেই দেওয়া হয়।

সিমপাং লজ-২ এ থাকা বাংলাদেশি শ্রমিক আল জাহাঙ্গির জানিয়েছেন, তিনি যেখানে থাকেন সেখানে অসংখ্য শ্রমিক রয়েছে। তাই এখানে এটি ছড়িয়ে পড়ার সম্ভাবনা বেশি।

নিহত ঐ বাংলাদেশি শ্রমিকের সঙ্গে সরাসরি একসঙ্গে কাজ করতেন অথবা কাছাকাছি থাকতেন এমন আরো ৪৮ জন শ্রমিককে আলাদা করা হয়েছে পরীক্ষা করার জন্য। বর্তমানে তাদেরকে রাখা হয়েছে খু টেক পুয়াত হাসপাতালে। এক শ্রমিক মারা যাওয়ায় সেখানে অবস্থানরত বাংলাদেশি অন্য শ্রমিকদের মধ্যে উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।