ছাত্রীকে ধর্ষণ করে ভিডিও ইন্টারনেটে, ‘প্রেমিক’ গ্রেফতার

রংপুর প্রতিনিধি: রংপুরে এক কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ করে তার স্থির ও ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়ার দায়ে নুর মোহাম্মদ (২৩) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গত মঙ্গলবার রংপুর নগরের কলেজপাড়া এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। তিনি নীলফামারীর একটি বেসরকারি পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে পড়াশোনা করেছেন।

রংপুর পিবিআই কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিভাগীয় পুলিশ সুপার মজিদ আলী জানান, নীলফামারী জেলার ডিমলা থানার দক্ষিণ ঝুনাগাছ চাপানী গ্রামের শফিয়ারের ছেলে নুর মোহাম্মদ দীর্ঘদিন ধরে মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে প্রতারণা করে আসছিলো। সর্বশেষ কারমাইকেল কলেজের এক ছাত্রীর সঙ্গে সে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরপর তাকে ধর্ষণ করে ভিডিওচিত্র সামাজিক যোগাযোগের বিভিন্ন মাধ্যমে ছড়িয়ে দেয়। এ ব্যাপারে মেয়েটি নিজে কোতয়ালী থানায় ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফি আইনে মামলা করলে পিবিআই নুর মোহাম্মদকে গ্রেফতার করে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাসে ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন নুর মোহাম্মদ।

সংবাদ সম্মেলনে আরও জানানো হয়, ওই ছাত্রী রংপুর শহরে একটি স্কুলে পড়াকালে নুর মোহাম্মদের সঙ্গে পরিচয় হয়। এক পর্যায়ে দুজনের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরবর্তী সময়ে ২০১৫ সালের ১৪ এপ্রিল ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে রংপুরের একটি আবাসিক হোটেলে নিয়ে ধর্ষণ করে নুর মোহাম্মদ। তখন মোবাইল ফোনে ধর্ষণের চিত্র ধারণ করে নূর মোহাম্মদ। পরবর্তীতে ওই ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেয়ার ভয় দেখিয়ে মেয়েটির ওপর বিভিন্ন রকম মানসিক নির্যাতন করতে থাকে নুর মোহাম্মদ। বিভিন্ন স্থানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। দিনের পর দিন নির্যাতন সয়ে এক পর্যায়ে মেয়েটি বেঁকে বসলে নূর মোহাম্মদ মেয়েটির কিছু অশ্লীল ছবি তার পরিচিতদের ফেসবুক মেসেঞ্জারে পাঠায়।