অনুষ্ঠানের কথা বলে ডেকে নিয়ে তরুনী বাউল শিল্পীকে রাতভর গণধর্ষণ

আনোয়ার হোসেন রানা,স্টাফ রিপোর্টারঃ
ঢাকার আশুলিয়ায় এক কন্ঠ শিল্পী গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন। গত বুধবার রাতে আশুলিয়ায় একটি অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার কথা বলে পূর্ব পরিচিত আরেক নারী ওই শিল্পীকে নারায়ণগঞ্জ থেকে আশুলিয়ার ওই বাড়িতে ডেকে আনেন।

সেখানে গেলে তাকে একটি ঘরে আটকে রেখে ১০/১২ জন রাতভর ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে আশুলিয়া থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করার পর আজ শুক্রবার সকালে জামগড়া থেকে তাদের আটক করে আশুলিয়া থানা পুলিশ। আটককৃতরা হলেন, রাজ্জাক ও আতাউর।

মামলার লিখিত অভিযোগে শিল্পী বলেছেন, অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার কথা বলে ডেকে নিয়ে তাকে রাতভর আটকে রেখে তাঁকে গণধর্ষণ করা হয়েছে।

আশুলিয়া থানা-পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই শিল্পী মাজারে মাজারে ঘুরে গান করেন। মাস খানেক আগে তাঁর সঙ্গে আশুলিয়ার আরেক নারী শিল্পীর পরিচয় হয়। এর সূত্র ধরে গতকাল বুধবার রাতে আশুলিয়ায় একটি গানের অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার ডাক পান ওই শিল্পী। তিনি নারায়ণগঞ্জ থেকে গতকাল সন্ধ্যার দিকে আশুলিয়ায় যান। পূর্বপরিচিত শিল্পীর দেওয়া ঠিকানায় যাওয়ার পর তাঁকে একটি ঘরে আটকে রেখে আট থেকে দশজন ধর্ষণ করেন।

বিষয়টি জানার পর স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় আশুলিয়া থানা-পুলিশ তাঁকে উদ্ধার করে থানায় নেওয়ার পর শিল্পী বাদী হয়ে মামলা করেন। পরে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) পাঠিয়ে দেওয়া হয়।

আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল আউয়াল সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ বেলা দেড়টার দিকে শিল্পীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। এরপর তাঁর অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে মামলা নথিভুক্ত করে তাঁকে ওসিসিতে পাঠানো হয়েছে।

আজ শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১ টায় তিনি সময়ের কণ্ঠস্বরকে বলেন, পুলিশ আশুলিয়ার বিভিন্ন এলকায় অভিযান চালিয়ে ঘটনায় জড়িত রাজ্জাক ও আতাউর নামে ২ জনকে গ্রেপ্তার করেছে ।

গ্রেপ্তার ২জনকে নিয়ে ঘটনায় জড়িত বাকীদের ধরতে অভিযান চালানো হচ্ছে বলেও জানিয়েছেন আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল আউয়াল। অভিযান শেষে আনুষ্ঠানিকভাবে ব্রিফ করে বিস্তারিত জানানো হবে বলে জানান তিনি।