ছাত্রলীগ নেতা হত্যা মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান-ওসি কারাগারে

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি- সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা ও উপজেলার জয়নাল আবেদীন কলেজের তৎকালীন ছাত্রলীগ সভাপতি ওয়াহিদুজ্জামান শিপুল হত্যা মামলায় উপজেলা চেয়ারম্যান, থানার তৎকালীন ওসিসহ ৭ জনকে জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন আদালত।

আজ রবিবার দুপুরে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ প্রণয় কুমার দাশের আদালতে মামলার রায়পূর্ব শুনানীতে উপস্থিত হলে আদালত তাদের জেল হাজতে পাঠিয়ে দেন। আগামী ৩১ আগস্ট মামলার রায় হবে।

কারাগারে পাঠানো অন্য আসামিরা হলেন, তাহিরপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুজ্জামান কামরুল, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি মেহেদী হাসান উজ্জ্বল, বিএনপি নেতা জুনাব আলী, তাহিরপুর থানার তৎকালীন ওসি শরিফ উদ্দিন, তৎকালীন এসআই রফিক, যুবদল নেতা শাহীন মিয়া ও শাহাজাহান মিয়া।

সুনামগঞ্জের সরকারি কৌসুলি (পিপি) খায়রুল কবির রুমেন এ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

মামলার নথির বরাত দিয়ে তিনি জানান, ২০০২ সালের ২০ মার্চ বিকেলে আসামিরা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে তাহিরপুরের ভাটি তাহিরপুর গ্রামে ওয়াহিদুজ্জামানের বাড়িতে হামলা চালান। এ সময় গুলিতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ওয়াহিদুজ্জামান। এ ঘটনায় ২৩ মার্চ ওয়াহিদুজ্জামানের মা আমিরুন্নেসা বাদী হয়ে সাতজনের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেন। মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে আজ আসামিদের কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

বিএনপি নেতা কামরুজ্জামানের আইনজীবী আবদুল হক জানান, হত্যা মামলার শুনানি শেষে কামরুজ্জামানকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। আগামী ৩১ আগস্ট মামলার রায় ঘোষণা করা হবে। মামলায় কামরুজ্জামানসহ অন্যরা খালাস পাবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

আরআই