কাতারের প্রস্তাব যে কারণে ফিরিয়ে দিয়েছে বাংলাদেশ

সময়ের কণ্ঠস্বর: ২০২০ সালে দুবাইতে অনুষ্ঠিতব্য আন্তর্জাতিক এক্সপোর স্থান পরিবর্তনের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়েছে বাংলাদেশ। আজ রোববার সচিবালয়ে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ কাতারের রাষ্ট্রদূত আহমেদ মোহামেদ আল দেহিমীর এই সংক্রান্ত এক প্রস্তাব নাকচ করে দেন।

বৈঠকে কাতারের রাষ্ট্রদূত আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, ২০২০ সালে দুবাইতে আন্তর্জাতিক মেলা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছ। কিন্তু সৌদি জোটের চলমান সঙ্কটের কারণে এক্সপোতে কাতারের অংশগ্রহণ অনিশ্চিত। সেজন্য কাতার ভেন্যু পরিবর্তন করতে চাচ্ছে। এ জন্য তিনি বাংলাদেশের সহায়তা বা অবস্থান জানতে চান।

এর জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেন, এটা আমরা করতে পারবো না। কারণ স্থানটি ভোটাভুটির মাধ্যতে নির্ধারণ করা হয়েছিল। আমরা এ পরিবর্তনে রাজি না। কাতারের প্রস্তাব ফিরিয়ে দেয়ার দেশটির সঙ্গে কোনো দুরত্ব বাড়বে কি না- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, এতে কাতারের সঙ্গে সম্পর্কের কোনো প্রভাব পড়বে না। অন্য দেশের সঙ্গে একই সম্পর্ক রাখবো।

তিনি বলেন, কাতারের ওপর অবরোধ আরোপের আগে তারা ৭৭ মিলিয়ন টন গ্যাস রপ্তানি করতো। যা এখন ১০০ মিলিয়ন টন ছাড়িয়ে গেছে। কাজেই এই অবরোধে তাদের কোনো সমস্যা হয়নি।

মন্ত্রী বলেন, ২০১৮ সালের মধ্যে দেশের গ্যাস সংকট নিরসনে আমরা কাতার থেকে এলএনজি আমদানির প্রক্রিয়া চলমান।
প্রসঙ্গত, ২০২০ বিশ্ব বাণিজ্য মেলার এর স্বাগতিক দেশ হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। প্যারিসে আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী ব্যুরোর ১৫৪তম সাধারণ অধিবেশনে নির্বাচনে সংযুক্ত আরব আমিরাত বিশ্ব বাণিজ্য মেলার স্বাগতিক দেশের মর্যাদা পায়। দেশটি এক ভোটাভুটিতে প্রতিদ্বন্দ্বী ব্রাজিল, তুরস্ক ও রাশিয়াকে হারিয়ে তারা এ সুযোগ অর্জন করেছে। ভোটে মধ্যপ্রাচ্যের দেশ আরব আমিরাতকে সমর্থন দেয় বাংলাদেশ।

এর আগে শেষ মেলাটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ২০১৫ সালের ইতালির মিলান শহরে। ২০১০ সালে হয় চীনের সাংহাই শহরে। বিশ্বের প্রথম বাণিজ্য মেলাটি অনুষ্ঠিত হয়েছিল ১৮৫১ সালে। এরপর থেকে প্রতি পাঁচ বছর পর পর বিশ্বের বিভিন্ন শহরে এ মেলাটি অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে।