হারিয়ে যাচ্ছে ঈদ কার্ডের প্রচলন

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: বাঙ্গালির ঈদ-আনন্দের সঙ্গে এক সময় জড়িয়ে ছিলো ঈদ কার্ডের প্রচলন। ঈদকে সামনে রেখে শহর বা গ্রাম, সবখানেই ছিল ঈদ কার্ডের রমরমা ব্যবসা। কিন্তু প্রযুক্তির কারণে বাঙালির এই ঈদ কার্ডের সংস্কৃতি আজ প্রায় বিলুপ্তির পথে।

নানা রঙে বর্ণিল সুদৃশ্য কার্ডের ওপর লেখা থাকত ‘ঈদ মোবারক’। শুধু দোকানগুলোতেই নয়, পাড়ার ছেলেরা শামিয়ানা টাঙিয়ে তার নিচে টেবিল সাজিয়ে বসত ঈদকার্ড বিক্রির জন্য।

ঈদ কার্ডের বদলে মানুষ এখন অভিনব পদ্ধতিতে আমন্ত্রণ জানাচ্ছে তার প্রিয় মানুষটিকে। কেউ মোবাইল ফোনের ক্ষুদে বার্তায়, কেউ ফেসবুকে, কেউ টুইটারে, আবার কেউ ইমেইলের মাধ্যমে জানাচ্ছে ঈদের আমন্ত্রণ।

ঈদ কার্ডের জন্য বিখ্যাত রাজধানীর পল্টন এলাকার বিভিন্ন দোকান ঘুরে ঈদ কার্ড দেখছিলেন এক বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সারোয়ার আলম। ঈদ কার্ড বিষয়ে তিনি বলেন, আগের দিনে ঈদের অনেক আগেই আনন্দ লেগে থাকত সবার চোখেমুখে। গুঞ্জন উঠত কে কাকে ঈদ কার্ড দিল, কে কাকে দেবে, আর এরপরই প্রিয়জনের কাছ থেকে শুভেচ্ছা পাওয়ার জন্য চলত অপেক্ষার পালা। আজ হয়ত তরুণ-তরুণীরা জানেও না এসব কার্ডের কথা। এখন ঈদ কার্ডের স্থান দখল করেছে ই-কার্ড, এসএমএস বা ফেসবুকে শুভেচ্ছা বিনিময়।

বিভিন্ন ধরনের কার্ড বিক্রির একটি জনপ্রিয় প্রতিষ্ঠানের শাখা ব্যাবস্থাপক মোহাম্মাদ আরমানের কাছে জানতে চাওয়ার বিষয় ছিলো ‘বর্তমান ডিজিটাল ও আধুনিকতার ছোঁয়ায় কি হারিয়ে যাচ্ছে ঈদকার্ডের ঐতিহ্য?’

জবাবে তিনি বলেন, ঈদ কার্ডের এখন কোনো ব্যবসা নেই। কর্পোরেট কিছু অফিস এবং রাজনৈতিক দল বা ব্যক্তির পক্ষ থেকে কার্ডের কিছু অর্ডার আসে। এছাড়া ঈদ কার্ডের তেমন কোনো বিক্রি নেই। দশ বছর আগেও এমন অবস্থা ছিল যে ঈদের এই সময়টাতে দম ফেলার সময় থাকত না। সারাদেশ থেকে পাইকারি ও খুচরা ক্রেতাদের আগমনে আমাদের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান সরব থাকত।

আগে কাগজে ঈদকার্ড দিয়ে শুভেচ্ছা জানানোর একটা আলাদা ফ্লেবার ছিলো কিন্তু এখন ইন্টারনেট, ফেসবুক, মোবাইল এসএমএস দিয়েই ঈদের শুভেচ্ছার কাজটা সেরে ফেলে সবাই। তাই বর্তমানে ডিজিটাল ও আধুনিকতার ছোঁয়ায় অনেকটাই হারিয়ে যাচ্ছে কাগুজে ঈদকার্ড ঐতিহ্য।