সমিতির দেড়শতাধিক মানুষের কোটি টাকা আত্মসাত গফরগাঁওয়ে মানববন্ধন

আব্দুল মান্নান পল্টন, ময়মনসিংহ ব্যুরো: ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ে একটি সমিতির হত দরিদ্র ১২৫ জন মানুষের সাড়ে ৪ হাজার নামের প্রায় কোটি টাকা আত্মসাত করেছেন সমিতির ক্যাশিয়ার সুদখোর খ্যাত আফাজ উদ্দিন ওরফে সুইদ্ধা আফাজ।

টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আফাজ উদ্দিন ও তার ছেলেসহ ৫ জনকে আসামী করে সমিতির সকল সদস্যদের পক্ষে মোঃ রুহুল আমীন বাদী হয়ে আজ বৃহস্পতিবার সকালে গফরগাঁও থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

মামলার এজাহার সুত্রে জানান যায়, গফরগাঁও পৌর শহরের ষোলহাসিয়া এলাকার বাসীন্ধা আফাজ উদ্দিন এক বছর পূর্বে স্থানীয় শ্রমজীবী ১শত ২৫ জন হত দরিদ্র মানুষদের নিয়ে একটি সমিতি করেন। ১২৫ জন সদস্যরা অতিরিক্ত মুনাফার লোভে ৪ হাজার ৫ শত নামে নিয়মিত সঞ্চয়ের টাকা পরিশোধ করেন। এতে আফাজ উদ্দিনের কাছে সদস্যদের সঞ্চয়কৃত ৭০/৮০ লাখ টাকা জমা হয়। সেই সমিতির সভাপতি ও ক্যাশিয়ার ছিলেন আফাজ। সদস্যরা টাকার জন্য চাপ দিলে আফাজ উদ্দিন অনেকেই লাঞ্চিত করেছেন বলে জানান পাওনাদাররা।

সমিতির সদস্যরা কাদতে কাদতে বলেন, আফাজ উপজেলার ভয়ঙ্কর সন্ত্রাসী, তার ৪ ছেলে তারাও খুব ভয়ঙ্কর তার বিরুদ্ধে লড়াই করছি কখন যে আমাদের মেরে ফেলে ঠিক নেই।

এ ঘটনায় গত বুধবার সকাল ১১টায় ক্ষুদ্ধ এলাকাবাসী স্থানীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন ও পৌরশহরের প্রধান প্রধান সড়কে ও থানা গেইটে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মাহবুব আলম টাকা উদ্ধারের আশ্বাস প্রদান করে বিক্ষোভকারিদের শান্ত করে। এ সময় বিক্ষোভকারীরা থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এলাকাবাসীর দায়েরকৃত অভিযোগটি আজ বৃহস্পতিবার এফ আই আর হিসেবে গন্য করা হয়েছে।

এ ছাড়াও গফরগাঁওয়ের সাবেক এমপি এনামুল হক জজসহ অসংখ্য মানুষ গফরগাঁও থানায় তার বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করেছেন।

গফরগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ একেএম মাহবুব আলম বলেন, ভুক্তভোগী মানুষদের সাথে কথা বলেছি অসহায় হতদরিদ্র মানুষগুলোর কষ্টের কথা শুনে খুবই কষ্ট পেয়েছি। এতগুলো মানুষের টাকা আত্মসাত করে আফাজ কখনও পার পাবেনা। এ ছাড়াও আফাজের বিরুদ্ধে গফরগাঁওয়ের সাবেক এমপি এনামুল হক জজসহ অনেকেই অভিযোগ করেছেন। তদন্ত করে দরিদ্র মানুষগুলোর টাকা উদ্ধারের সর্বাত্তক চেষ্টা করা হবে। আফাজের বিরুদ্ধে থানায় মামলা রুজু হয়েছে বলেও জানান তিনি।