চেয়ারম্যনের সামনে বুকফাটা আর্তনাদ! সৎ বাবার বিকৃত লালসার শিকার ১০ বছরের শিশু

রাজশাহী প্রতিনিধি-
রাজশাহীর পুঠিয়ায় সৎ বাবার বিরুদ্ধে ১০ বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় সৎ বাবাসহ দু’জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। এ ঘটনায় থানায় মামলা করা হয়েছে। ওই শিশুটিকে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা রয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলো- পুঠিয়ার শিলমাড়িয়া গ্রামের খবির উদ্দিন (৪০) ও ওহাব আলী (২৬)। তারা পৃথক দুই দিনে ওই মেয়েটিকে ধর্ষণ করে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার ভালুকগাছী ইউনিয়নের ধোকড়াকুল গ্রামের খবির উদ্দিন দীর্ঘদিন ধরে শিলমাড়িয়া ইউনিয়নের খোকসা গ্রামে ভাড়া বাড়িতে থাকেন। খবির উদ্দিন ও তার দ্বিতীয় স্ত্রীর খাদিজা বেগমের সঙ্গে একই বাড়িতে থাকতো সৎ শিশুটি। এরই মধ্যে গত ২৭ আগস্ট খোকসা গ্রামের মৃত লোকমান আলীর ছেলে ওহাব আলী শিশুটিকে বাড়িতে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। এতে অসুস্থ হয়ে পড়ে মেয়েটি।
এ ঘটনার পর বিষয়টি ধামাচাপা দিতে পারিবারিকভাবে মীমাংসার চেষ্টাও চলে। কিন্তু শিশুটির অবস্থা ক্রমেই অবনতি হলে স্থানীয়দের মধ্যে বিষয়টি জানাজানি হয়ে যায়।

চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন মুকুল জানান, বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হলে বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টার দিকে লোকজন নিয়ে শিশুটির খোঁজ-খবর নিতে যান চেয়ারম্যান। এ সময় শিশুটি হাউ-মাউ করে কেঁদে উঠে জানায় যে, প্রায় এক মাস আগে শিশুটির মা বাড়ির বাইরে থাকা অবস্থায় তার সৎ বাবা খবির উদ্দিনও তাকে একা পেয়ে ধর্ষণ করে। এরপর বিষয়টি কাউকে জানালে শিশুটিকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় খবির। ভয়ে শিশুটি কাউকে কিছু জানায়নি। এ ঘটনার পরে গত ২৭ আগস্ট সকালে শিশুটির মা ও সৎ বাবা কাজের সুবাদে বাড়ির বাইরে থাকায় বাড়িতে একা পেয়ে ওহাব আলী নামের ওই যুবক শিশুকে দ্বিতীয় বারের মতো ধর্ষণ করে।

চেয়ারম্যান সাজ্জাদ হোসেন আরো বলেন, মেয়েটির নিকট ধর্ষণের এমন লোমহর্ষক ঘটনা জানার পরে থানা পুলিশকে খবর দেয়। এরপর থানা পুলিশ এসে দুই ধর্ষককেই গ্রেপ্তার করে।

পুঠিয়া থানার ওসি তদন্ত রাকিবুল হাসান জানান, নির্যাতিত শিশুটিকে রামেক হাসপাতালের ওসিসিতে প্রেরণ করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে দু’জনের বিরুদ্ধেই ধর্ষণের বিষয়টি প্রমাণিত হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হবে। এ ঘটনায় মেয়েটির মা বাদী হয়ে থানায় মামলা করেছে।