চাঁদপুরে চিরকুট লিখে অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছে দুই সন্তানের জননী এক প্রবাসীর স্ত্রী

চাঁদপুর প্রতিনিধি –
অভিমানী চিরকুট লিখে এক প্রবাসীর স্ত্রী ও দুই সন্তানের জননী হালিমা আক্তার পুতুল (২৮) অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন। এ ঘটনায় প্রবাসীর পরিবার ও প্রবাসীর শ্বশুর বাড়ি থেকে পাল্টাপাল্টি অভিযোগে হাজীগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ উপজেলায় গত ৭ মাসে শতাধিক নারী অজানার উদ্দেশ্যে পাড়ি জমিয়েছেন। সেই আতঙ্ক না কাটতেই

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ১০ বছর আগে উপজেলার ৬নং বড়কুল পূর্ব ইউপির সেন্দ্রা পাটোয়ারী বাড়ির তাফাজ্জল পাটোয়ারীর মেয়ে হালিমা আক্তার পুতুলকে বিয়ে দেয়া হয়। ওই সময় একই উপজেলার রায়চোঁ গ্রামের পতন আলী ফকির বাড়ির মনু মিয়ার ছেলে আবু ছায়েদ ধুম-ধাম করে পুতুলকে বিয়ে করেন।

সুখে শান্তিতে কাটছিল তাদের সংসার জীবন। পরে সংসারের ঘানি টানতে আবু ছায়েদ সৌদিআরবে পাড়ি জমান। স্ত্রী-সন্তানদের দেখভাল করতে প্রায়ই আসতেন দেশে। এরই মধ্যে তাদের পরিবারে আসে দুটি ছেলে সন্তান। দীর্ঘ ১০ বছর তাদের দাম্পত্য জীবনে সুবাতাস বইলেও এর মধ্যে উভয়ে একে অপরকে সন্দেহ করে।

এই সন্দেহের মাত্রা একপর্যায়ে ঝগড়ায় রুপ নেয়।
এরই মধ্যে পুতুলের মনে অভিমান না পরকীয়া বিষয়টি কেউ টের না পেতে স্বামীর ঘরে একটি চিরকুট লিখে পালিয়ে যান পুতুল।

গত বুধবার বাড়ি থেকে যাওয়ার সময় পুতুল একটি চিরকুট লিখেন যাতে লিখা রয়েছে, ‘ছায়েদ আপনার কথার পর আমি এখানে আর থাকব না। আমার ছেলেদের রেখে গেলাম। আমার ছেলেদের দিকে খেয়াল রাখবেন। ’ এভাবে অল্প কথায় একটি চিরকুট লিখে ১০ বছরের সংসার জীবনের ইতি টানেন তিনি।

স্থানীয়রা বলছেন, পুতুলের খোঁজ মিললে আসল বিষয়টি জানা যাবে। এটি অভিমান নাকি পরকীয়া এখনও নিশ্চিত করতে পারেনি কেউ।