৩৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীর জন্য খাবারের ব্যবস্থা করবে শিখদের সংগঠন

সময়ের কণ্ঠস্বর: বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জন্য খোলা হয়েছে ‘গুরু কা লাঙ্গর’। শিখ সম্প্রদায়ের এই সংগঠনটি প্রতিদিন ৩৫ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থীর জন্য খাবারের ব্যবস্থা করবে। স্বেচাসেবী সংগঠন খালসা এইড (ইন্ডিয়া) আজ থেকে বাংলাদেশের টেকনাফ সীমান্তে কাজ শুরু করেছে বলে জানায় দ্যা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

প্রাথমিক ভাবে স্বেচ্ছাসেবী এই দলটি রোহিঙ্গাদের প্যাকেটজাত খাবার ও পানি বিতরন করে। তবে আজ থেকে তারা রান্না করা খাবার সরবরাহ করতে শুরু করেছে। আজ বৃহস্পতিবার থেকে শাহপরীর দ্বীপে অবস্থান নিয়ে রোহিঙ্গাদের জন্য ভাত ও সবজির ব্যবস্থা করছে দলটি।

প্রতিদিন খাবার সরবরাহের আগে রোহিঙ্গাদের জন্য দোয়া অনুষ্ঠিত হবে।

খালসা এইড ইন্ডিয়ার ব্যবস্থাপনা পরিচালক আমপ্রীত সিং বলেন, বাংলাদেশ সরকারের থেকে প্রয়োজনীয় অনুমতি পত্র নিয়ে আমরা আজ থেকে কাজ শুরু করতে যাচ্ছি।

গতকাল বুধবারই সব বাজার করে রেখেছি। প্রতিদিন ৩৫ হাজার জনকে খাওয়ানোর ব্যবস্থা করবো। জানি শরণার্থীর সংখ্যার তুলনায় এই খাবার খুবই কম, তবু কিছু তো শুরু করতে চাই।’