চরফ্যাসনের ৮০’র দশকের ১৪ সাংবাদিক ভোলায় সংবর্ধিত

এস আই মুকুল, ভোলা প্রতিনিধি: চরফ্যাসনে ৮০র দশকে সাংবাদিকতা এবং সংবাদপত্র প্রকাশনার ক্ষেত্রে রেনেসাঁ বা নবযুগের সুচনাকারী ১৪ জন সাংবাদিককে ভোলায় সংবর্ধিত করা হয়েছে।

শুক্রবার ভোলা জেলা পরিষদ মিলনায়তনে নবীন ও প্রবীন গুনী সাংবাদিকদের সম্মাননা ও ৮০’র দশকের সাংবাদিকদের মিলন মেলা উপলক্ষে ৮০’র দশকের সাংবাদিক প্রজম্ম, ভোলা আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবদুল মমিন টুলু, প্রধান আলোচক বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক (বার্তা) নাসির আহমেদ, গেস্ট অব অনার পুলিশ সুপার মোঃ মোকতার হোসেন সাংবাদিকদের হাতে সম্মাননা ক্রেষ্ট তুলে দেন।

অনুষ্ঠানে মরনোত্তর সম্মাননা পেয়েছেন চরফ্যাসন থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক উপকূল পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম অধ্যক্ষ এম এম নজরুল ইসলাম। তার পক্ষে তার ছেলে জাহিদুল ইসলাম সৌরভ সম্মান ক্রেস্টটি গ্রহন করেন। সম্মাননা প্রাপ্ত সাংবাদিকরা হলেন, চরফ্যাসন প্রেসক্লাব সভাপতি ও কুকরী মুকরী ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাসেম মহাজন, চরফ্যাসন সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ কায়সার আহমেদ দুলাল, পৌর মেয়র শ্রী বাদল কৃষ্ণ দেবনাথ, চরফ্যাসন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি প্রভাষক মনির উদ্দিন চাষী, জেলা জাতীয় পার্টি সভাপতি কেফায়েত উল্যাহ নজিব, আঞ্জুর হাট ইসলামিয়া সিনিয়র মাদ্রাসার সহকারী অধ্যাপক শাহ গোলাম মাওলা ও ব্যবসায়ী জুলফিকার মাহমুদ নিয়াজ।

মনোনিত ৬ সাংবাদিক অজ্ঞাত কারনে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেননি তারা হলেন দৈনিক নয়াদিগন্তের সিনিয়র সাব এডিটর ইদ্রিস মাদ্রাজী, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলার কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইয়াছিন মোহাম্মদ, এনজিও কর্মকর্তা আবদুল হামিদ মাহমুদ, বরিশাল সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ মোঃ আওলাদ হোসেন মামুন এবং দৈনিক ভোরের দর্পনের বার্তা সম্পাদক শাহ মতিন টিপু।

চরফ্যাসনের ১৪ সাংবাদিকসহ ভোলার বিভিন্ন জেলা উপজেলায় জন্ম গ্রহনকারী ৮০’র দশকের ৪৫জনকে সন্মাননা এবং ১০ জন সাংবাদিককে মরনোত্তর সন্মাননা দেয়া হয়েছে। ৮০’র দশকের সাংবাদিক প্রজন্ম ভোলার আহবায়ক এডভোকেট নজরুল হক অনুর সভাপতিতে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যথাক্রমে সাপ্তাহিক মুক্তবানীর সম্পাদক নিজাম উদ্দিন আহমেদ, জেলা বিএনপির সভাপতি আলহাজ্ব গোলাম নবী আলমগীর, শিক্ষাবিদ ও সমাজকর্মী প্রফেসর রুহুল আমিন জাহাঙ্গীর, রাজনীতিবীদ ও সমাজকর্মী মোঃ আনোয়ার হোসেন, উপজেলা পরিষদ ভোলা’র ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুছ ও ভোলা প্রেসক্লাব সম্পাদক সামস্ উল আলম মিঠু।