রোহিঙ্গা ইস্যুতে মিয়ানমারে গিয়ে জিহাদ আগ্রহী ব্যক্তিদের জন্য রেজিস্ট্রেশন শুরু ইন্দোনেশিয়ায়!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: মিয়ানমারে গিয়ে জিহাদ করতে আগ্রহী এমন ব্যক্তিদের জন্য একটি রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি শুরু করেছে ইন্দোনেশিয়ায় কট্টর ইসলামপন্থী দল ইসলাম ডিফেন্ডারস ফ্রন্ট। রোহিঙ্গাদের জিহাদে অংশ নেয়ার ডাক দেয়া হয়েছে এমন একটি ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্ট ৭৬ হাজারের বেশি বার ক্লিক পড়েছে। ইন্দোনেশিয়াতে ইসলামিক স্টেট গোষ্ঠীর সমর্থকরাও মুসলিমদের মিয়ানমারে গিয়ে জিহাদ শুরু করার ব্যাপারে উৎসাহিত করছে বলে আশংকা করা হচ্ছে। খবর বিবিসির।

সম্প্রতি দেখা যাচ্ছে, শহীদ বা জিহাদ শব্দগুলোর ব্যবহার হঠাৎ বেড়ে গেছে ইন্দোনেশিয়ায়। বিবিসির মনিটরিং এর এক গবেষণা বলছে, সেখানে জিহাদি এবং উগ্র ইসলামপন্থী মতাদর্শে বিশ্বাসীরা সে নিয়ে ছবি মেসেজিং অ্যপ ইনস্টাগ্রামে বার্তা চালাচালি করছেন।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়াতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে রোহিঙ্গা ইস্যুতে কেমন আলাপ হচ্ছে সেটি নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে এ ধরনের তথ্য পেয়েছে বিবিসি মনিটরিং।

ক্রিমজন হেক্সাগন নামের একটি সোশাল মিডিয়া অ্যানালিটিকাল টুল দিয়ে এমন তথ্য মিলছে। যাতে দেখা যাচ্ছে- আগস্ট মাসের শেষে মিয়ানমারে নতুন করে সংকট শুরুর পর থেকে এ ধরনের কথাবার্তা বাড়তে শুরু করেছে। বিশেষ করে সেপ্টেম্বরের ৪ তারিখ সে নিয়ে সবচাইতে বেশি আলাপ হয়েছে।

ইসলামিক স্টেট ও আল কায়েদার সমর্থক সংগ্রহকারীরা রোহিঙ্গা ইস্যুটি ব্যবহার করছে বলে আশংঙ্কা তৈরি হয়েছে।

ফিলিপিন্সের উগ্র ইসলামপন্থী গোষ্ঠী আবু সায়াফকেও তাতে অংশ নেয়ার ব্যাপারে ডাক দেয়া হচ্ছে। ইনস্টাগ্রামে বিশেষ বার্তায় ব্যবহার করা হচ্ছে বিশেষ হ্যাশট্যাগ। এমনকি কেউ কেউ ভিডিও শেয়ার করে এমনও দাবি করছেন যে মিয়ানমারে ইতিমধ্যেই জিহাদিরা পৌঁছে গেছে। বাংলাদেশ থেকেও জিহাদিরা মিয়ানমারে প্রবেশ করছেন এমন কথাবার্তাও ইন্দোনেশিয়াতে উগ্র ইসলামপন্থীদের পোষ্টগুলোতে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মিয়ানমারে রোহিঙ্গা মুসলিমদের নির্যাতনের ঘটনা নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলে ব্যাপক আলাপ হলেও বিশ্বের সবচাইতে বড় মুসলিম দেশ ইন্দোনেশিয়াতে বিষয়টি উগ্রবাদী মতাদর্শের জন্ম দিয়েছে। দেশটিতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের রক্ষায় মিয়ানমারে গিয়ে জিহাদ করা নিয়ে কথাবার্তা অনেক বেড়ে গেছে।