জাতিসংঘের ৭২তম অধিবেশনে সংস্কারবিষয়ক সভায় প্রধানমন্ত্রীর যোগদান

সময়ের কণ্ঠস্বর ডেস্ক: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জাতিসংঘের সংস্কারে মার্কিন প্রেসিডেন্ট আয়োজিত উচ্চপর্যায়ের এক সভায় যোগদান করেন। সভায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলীও উপস্থিত ছিলেন। সোমবার জাতিসংঘ সদর দফতরে আয়োজিত এ সভায় বিশ্ব সংস্থার ৭২তম অধিবেশনে যোগদানে আগত ১৯৩টি দেশের রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানরা যোগ দেন।

উচ্চপর্যায়ের এ সভার আলোচ্য বিষয়ের শিরোনাম ছিল ‘জাতিসংঘের সংস্কার : ব্যবস্থাপনা, নিরাপত্তা ও উন্নয়ন’। জাতিসংঘ মহাসচিব গুতেরেজেসের এ বিশ্ব সংস্থার বৃহত্তর দক্ষতা, জবাবদিহিতা ও স্বচ্ছতা আনয়নে একটি ঘোষণা গ্রহণের প্রচেষ্টাকালে এ সভা অনুষ্ঠিত হলো। আজ সকাল পর্যন্ত এ ঘোষণায় ১২৮টি দেশ স্বাক্ষর করেছে।

উল্লেখ্য, জাতিসংঘের ৭২তম সাধারণ অধিবেশনে যোগ দিতে গত রবিবার নিউইয়র্কে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এ সময় তাকে অভ্যর্থনা জানান যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মো. জিয়াউদ্দিন এবং জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত ও স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন। বিমানবন্দরের বাইরে স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানান।

এর আগে, ঢাকা থেকে নিউইয়র্কে যাওয়ার পথে শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে যাত্রাবিরতি করেন প্রধানমন্ত্রী। রবিবার স্থানীয় সময় সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে ইত্তিহাদ এয়ারওয়েজের একটি বিমানে করে প্রধানমন্ত্রী ও তার সফরসঙ্গীরা আবুধাবি বিমানবন্দর ত্যাগ করেন।

নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দপ্তরে গত ১২ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশন শুরু হয়েছে। আগামী ১৯ থেকে ২১ সেপ্টেম্বর চলবে সাধারণ বিতর্ক। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ ১৯৩টি সদস্য দেশের প্রতিনিধিরা এবারের সম্মেলনে অংশ নিবেন। প্রধানমন্ত্রী ৫১ সদস্যের বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের নেতৃত্ব দিবেন।

আগামী ২১ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ অধিবেশনে ভাষণ দিবেন প্রধানমন্ত্রী। ১৯ সেপ্টেম্বর প্রধানমন্ত্রী অন্যান্য রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে জাতিসংঘ মহাসচিব আয়োজিত মধ্যাহ্ন ভোজে যোগ দেবেন। এছাড়া জাতিসংঘ অধিবেশনে অংশ নেওয়া বিভিন্ন রাষ্ট্র ও সরকার প্রধানদের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকও করবেন প্রধানমন্ত্রী। নিউইয়র্ক থেকে ভার্জিনিয়ায় গিয়ে সপ্তাহখানেক অবস্থানের পর আগামী ২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরবেন।