ঠোঁটের কালচে দাগ দূর করার উপায়

লাইফস্টাইল ডেস্ক: সুন্দর গোলাপি ঠোঁট মুখের সৌন্দর্য আরও বাড়িয়ে তোলে। প্রাকৃতিক স্বাস্থ্যকর গোলাপি ঠোঁটের জন্য বাড়তি কোন কিছুর দরকার পরে না। লিপস্টিক কিংবা লিপবাম ছাড়াই অনেক সুন্দর দেখায়। তাই সুন্দর, স্বাস্থ্যকর একজোড়া গোলাপি ঠোঁট কম বেশি সবারই কাম্য।

কিন্তু সূর্যের অতি বেগুনি রশ্মি, ধূমপান, চা/কফি পান এবং বয়স ইত্যাদি বিভিন্ন কারণের আমাদের ঠোঁটে কালচে ভাব চলে আসে। যা খুবই অস্বস্তিকর। কিন্তু এই সমস্যারও সমাধান রয়েছে। ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করে ঠোঁটে পুনরায় গোলাপি আভা আনতে আছে কিছু প্রাকৃতিক ও সহজ পদ্ধতি।

লেবুর রস

লেবুর রস ঠোঁটের কালো দাগ দূর করার জন্য খুবই উপকারী। লেবুর রসে রয়েছে খুবই শক্তিশালী প্রাকৃতিক ব্লিচিং উপাদান যা ঠোঁটের উপরে পড়া কালো দাগ তুলে ফেলতে সাহায্য করে থাকে। কয়েক ফোঁটা লেবুর রস নিয়ে তুলার বল অথবা হাতের আঙ্গুল দিয়ে কিছুক্ষণ ঘষুন। প্রতিদিন একবার করে এক সপ্তাহের জন্য এই নিয়ম মেনে চললে দেখতে পাবেন ঠোঁটের কালোভাব অনেকটাই দূর হয়ে গেছে।

বাদামী চিনি এবং লেবু 

ঠোঁটের এক্সফলিয়েট করার জন এক চা চামচ বাদামী চিনিতে পাঁচ ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে মিশিয়ে সেই মিশ্রণ ঠোঁটে লাগিয়ে এক মিনিট সময় নিয়ে খুব যত্ন সহকারে ঘষতে হবে। এরপর ভালমতো ধুয়ে ফেলে পছন্দমত লিপবাম দিতে হবে ঠোঁটে। প্রতি সপ্তাহে দুইবার এক্সফলিয়েট করাই যথেষ্ট।

আমন্ড অয়েল

শুধুমাত্র চুলের জন্যই নয় আপনার ঠোঁটের কালো দাগ তুলে ফেলার জন্যেও দারুণ উপকারী আমন্ড অয়েল। আমন্ড অয়েল মরা চামড়া তুলে ফেলে ঠোঁটের কালো দাগ দূর করতে সাহায্য করে। এর জন্যে প্রতিদিন রাতে কয়েক ফোঁটা আমন্ড অয়েল ঠোঁটে খুব ভালোভাবে ম্যাসাজ করতে হবে। এরপর তেল ধুয়ে না ফেলে ঠোঁটে থাকা অবস্থাতেই ঘুমিয়ে যেতে হবে। সকালে উঠে ঠোঁট ভালোভাবে ধুয়ে পছন্দ মতো লিপবাম ব্যবহার করতে হবে।

হলুদ গুঁড়া

ঠোঁটে ব্যবহারের জন্য এক চিমটি পরিমাণ হলুদ গুঁড়া এবং জায়ফল গুঁড়া নিয়ে অল্প পরিমাণ পানির সাহায্যে আঠালো পেষ্ট বানাতে হবে। এরপর ঠোঁটে সমানভাবে সেই পেষ্ট লাগিয়ে অপেক্ষা করতে হবে শুকিয়ে যাওয়ার জন্য। শুকিয়ে গেলে পানির সাহায্যে পরিষ্কার করে পছন্দসই লিপবাম ব্যবহার করতে হবে।

মধু

মধু একটি প্রাকৃতিক উপাদান যা ত্বককে উজ্জ্বল করতে সহায়তা করে। ঠোঁটের ত্বকও এর ব্যতিক্রম নয়। মধু আপনার ঠোঁট থেকে কালচে ভাব দূর করার সাথে সাথে আপনার ঠোঁটকে কোমল করে তুলবে।

বীটরুট

বীটরুট ঠোঁটের রঙ হালকা করা ও উজ্জলতা বাড়াতে বেশ কার্যকরী একটি উপাদান। বীটরুটের রস ঠোঁটে রক্তিম আভা নিয়ে আসে। তাই তাজা বীটরুটের রস ঠোঁটে লাগিয়ে ঠোঁটের কালচে ভাব দূর করতে পারেন।

বরফ

অনেকেই বরফের এই গুনটি সম্পর্কে ধারনা রাখেন না। যে কোন দাগের ওপর বরফ ঘষলে দাগ হালকা হয়ে যায়। ঠোঁটে এক টুকরো বরফ ঘষুন প্রতিদিন। এতে আপনার ঠোঁটের কালচে ভাব দূর হবে। বরফ ঠোঁটের আদ্রর্তার পরিমান ঠিক রেখে ঠোঁটকে রুক্ষতার হাত থেকেও পরিত্রান দেবে।

দুধের সর

দুধের সরের মাধ্যমে ঠোঁটের গোলাপি আভা ধরে রাখার এই পদ্ধতিটি প্রাচীন কাল থেকেই চলে আসছে। প্রাচীন যুগে রানীরা এই পদ্ধতি ব্যবহার করতেন। আপনিও এই পদ্ধতির মাধ্যমে আপনার ঠোঁটের হারানো দ্যুতি ফিরে পেতে পারেন। দুধের সরে মধু মিশিয়ে ঠোঁটে লাগান। দিনে বেশ কয়েকবার ব্যবহারে কিছুদিনের মধ্যেই আপনার ঠোঁটে ফিরবে গোলাপি আভা।