উদ্বোধনের আগের দিনই ভেঙে পড়ল ৩৮৯ কোটির বাঁধ!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: উদ্বোধনের ঠিক এক দিন আগেই অতিরিক্ত পানির চাপে ভেঙে পড়ল ভাগলপুরের গাটেশ্বর পন্থ ক্যানাল প্রকল্পের একাংশ। খুব জাকজমক আয়োজন করেই বাঁধটি নির্মাণ করার কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের। সেই মতে প্রচারও হয়েছিল জোরকদমে। কিন্তু উদ্বোধনের ২৪ ঘন্টা আগেই ভারতের গঙ্গা নদীর উপর নির্মিত ৩৮৯ কোটি রুপির বাঁধটি ভেঙে পড়লো।

বিহারের ভাগলপুর জেলার কাহালগাঁওয়ে ওই প্রকল্পের অধীনে প্রায় ৪০ বছর ধরে এই বাঁধ নির্মাণের কাজ চলছিল। সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, বিহার ও ঝাড়খণ্ডের কৃষকেরা এতে উপকৃত হবেন। বুধবার এই বাঁধ উদ্বেধনের কথা ছিল মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমারের। খবর আনন্দবাজারের।

অভিযোগ, অতিরিক্ত পানির চাপেই ভেঙে পড়েছে বাঁধটির একাংশ। বাঁধ ভেঙে পড়ায় কাহালগাঁওয়ের বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়েছে। ঘটনার জেরে বাতিল করা হয়েছে মুখ্যমন্ত্রীর অনুষ্ঠান। ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন সেচ প্রকল্পের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তারা। বিহারের পানিসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী লল্লন সিংহের কথায়, ‘পুরো মাত্রায় পানি ছাড়ার কারণেই বাঁধটির একাংশ ভেঙে পড়েছে। তবে প্রকল্পটির নতুন তৈরি অংশের কোনও ক্ষতি হয়নি।’

সরকারি সূত্রে খবর, বিহার ও ঝাড়খণ্ডের যৌথ উদ্যোগে তৈরি এই প্রকল্পে ভাগলপুরের প্রায় ১৮ হাজার ৬২০ হেক্টর এবং ঝাড়খণ্ডের প্রায় ৪ হাজার হেক্টর জমিতে চাষের কাজ সম্ভব হত। বাঁধ ভেঙে পড়ায় প্রভূত নিন্দা করেছেন লালু-তনয় তেজস্বী যাদব। টুইটারে তিনি লিখেছেন, সেচ প্রকল্পের দুর্নীতির কারণেই এই ঘটনা ঘটেছে। তার কথায়, ‘আরো একটি বাঁধ দুর্নীতির বলি হলো। রাজ্যের পানিসম্পদ উন্নয়ন দফতর দুর্নীতিতে ভরে গিয়েছে। এই ঘটনা তারই ফল।’