ভারতের অভ্যন্তরে বাংলাদেশি আটক, আহত ১

মোঃ ইউনুস আলী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: অবৈধভাবে ভারতীয় আত্মীয়ের বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে বিএসএফের হাতে আটক হয় লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার রিপন মিয়া (৩০) নামের একজন। আটক রিপন ঐ উপজেলার গাটিয়ার ভিটা গ্রামের বাসিন্দা নাজমুল ইসলামের ছেলে।

শুক্রবার (২২ সেপ্টেম্বর) পাটগ্রাম সীমান্তের ৮৪৩ নম্বর মেইন পিলারের ২ নম্বর সাব পিলারের ৫ গজ অভ্যন্তরে ভারতীয় চ্যাংরাবান্ধা ক্যাম্পের বিএসএফ সদস্যরা আটক করে ভারতীয় পুলিশের নিকট সোর্পদ করেছে।

অপরদিকে উপজেলার শ্রীরামপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা আবেদ আলীর ছেলে গরু পারারপারকারি আলতাব হোসেনকে (৩০) নামের এক বাংলাদেশি বেধম পিটিয়ে আহত করেছে বিএসএফ। সে বর্তমানে রংপর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এলাকাবাসি ও সীমান্ত সুত্রে জানা গেছে, ধৃত ব্যক্তি গত ৬ মাস আগে বৈধভাবে ভারতে তার আত্মীয়ের বাড়ী বেড়াতে যান। গত ২২ সেপ্টেম্বর রাত ১১ টায় সীমান্তে সন্দেহজনকভাবে ঘোরাফেরা করায় ৬১ বিএসএফ ব্যাটালিয়নের সদস্যরা তাকে আটক করে ক্যাম্পে নিয়ে যায়। বিষয়টি জানতে পেরে আটককৃত ব্যক্তির স্বজনেরা বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কে জানালে এ ঘটনায় পরদিন বুড়িমারী সীমান্তে পতাকা বৈঠকে বিএসএফ ধৃত ব্যক্তিকে আটক করে মেকলিগঞ্জ পুলিশের নিকট সোর্পদ করেছে বলে বিজিবিকে জানায়।

বর্ডারগার্ড বাংলাদেশ ১৫ বিজিবি ব্যাটালিয়নের পরিচালক লে. কর্ণেল গোলাম মোর্শেদ বাংলাদেশি আটকের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তবে অপর বাংলাদেশী আহতের ঘটনা তিনি জানেন না বলে জানান।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি