পাবনায় যাত্রীবাহী বাসে ডাকাতি: ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট

আব্দুল লতিফ রঞ্জু, পাবনা প্রতিনিধি- পাবনা-ঢাকা মহাসড়কের বেড়া ও সাঁথিয়া থানার সীমান্তবর্তী টুকু বাঁধ এলাকায় রোববার গভীররাতে ঢাকা থেকে পাবনা অভিমুখে ছেড়ে আসা ‘সি লাইন’ নামের একটি যাত্রীবাহি কোচে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে।

এ সময় ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে যাত্রীদের কাছ থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করেছে।

বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, ঘটনা আমি জেনেছি। তবে আমার থানার মধ্যে নয়। অন্যদিকে সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা বলছেন, ঘটনাটি শাহজাদপুর থানার মধ্যে পড়ে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, ঢাকার গাবতলী থেকে সি লাইন নামের একটি যাত্রীবাহি কোচ পাবনার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসে। কোচটি সিরাজগঞ্জের ফুড ভিলেজে যাত্রা বিরতির পর পাবনা অভিমুখে রওনা দিলে শাহজাদপুর এলাকায় পৌঁছালে যাত্রীবেশী ডাকাত দল অস্ত্রের মুখে ড্রাইভারের নিকট থেকে গাড়ীর নিয়ন্ত্রন নিয়ে নেয়। পরে ডাকাতের দল যাত্রীদের কাছ থেকে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার, মোবাইল ফোনসহ প্রায় ১০ লাখ টাকার মালামাল লুট করে বেড়া-সাঁথিয়া থানার সীমান্তবর্তী টুকু বাঁধ এলাকায় নেমে যায়।

ওই বাসের ডাকাত কবলিত যাত্রী হাইকোর্টের আইনজীবী কামরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আমরা কিছু বুঝে ওঠার আগেই ঘটনাটি ঘটে যায়। তিনি বলেন, ডাকাতেরা আমার নিকট থেকে প্রায় ২৩ হাজার টাকা ও মোবাইল ফোন সেট ছিনিয়ে নিয়েছে। ডাকাতির বিষয়টি নিকটস্থ থানায় অবহিত করলে পুলিশ বলেছে, এটি অন্য থানার ঘটনা। আমাদের কিছু করবার নেই।

কামরুল ইসলাম বলেন, বাসে কমপক্ষে ৩৫ জন যাত্রী ছিল। ডাকাতির সময়ে দুই মহিলা চিৎকার দিলে তাদের বেধড়ক মারপিট করে ডাকাত দল। তবে তাদের নাম পরিচয় পাওয়া যায়নি।

সংশ্লিষ্ট বিষয়ে সি লাইনের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সেলিম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ডাকাতির বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনকে অবহিত করা হয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত যাত্রীদের দিয়ে মামলা করানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি