ঝালকাঠিতে আমড়ার বাম্পার ফলনেও দাম পাচ্ছেন না কৃষক

মোঃ নজরুল ইসলাম, ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠিতে আমড়ার বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতিদিন ঝালকাঠির ভাসমান হাটে বিক্রি হচ্ছে লাখ লাখ টাকার আমড়া। আর সেখান থেকে নৌ কিংবা সড়ক পথে সারা দেশে সরবরাহ হচ্ছে ঝালকাঠির আমড়া। তবে ফলন বেশি হলেও দাম পাচ্ছেন না কৃষক। রয়েছে ছিটপড়া নিয়েও সমস্যা।

দেশ ব্যাপী বিপুল চাহিদা থাকায় ও লাভজনক হওয়ার কারণে দিনকে-দিন ঝালকাঠির জেলায় বেড়েই চলেছে পুষ্টিকর ফল আমড়ার চাষাবাদ। এখন আমড়ার মৌসুমে তাই ঝালকাঠির বিভিন্ন হাটে রমরমা বেচাকেনা চলছে। এর মধ্যে ঝালকাঠির ভিমরুলী প্রামের ভাসমান হাটটি সবচেয়ে বড়। এখান থেকে প্রতিদিন পাইকারা আমড়া কিনে সরবরাহ করছেন সারা দেশে। এ বছর আমড়ার ব্যাপক ফলন হয়েছে। কিন্তু কৃষক দাম পাচ্ছেন কম। গত বছর ১৮শ টাকা মন দরে বিক্রি হলেও এ বছর সবোর্চ্চ এক হাজার টাকায় বিক্রি হচ্ছে আমড়ার মন। তার ওপর রয়েছে আমড়ায় সিট পড়া সমস্যা।

কৃষি বিভাগের বিরুদ্ধেও সহযোগীতা না করার অভিযোগ রয়েছে কৃষকদের। এসব ছোট খাটো সমস্যা থাকলেও ঝালকাঠির বিভিন্ন হাট থেকে প্রতিদিন নৌ ও সড়ক পথে বিপুল পরিমান আমড়া ঢাকা-চট্টগ্রামসহ সারাদেশে সরবরাহ হচ্ছে বলে কয়েকজন আমড়া চাষি ও পাইকাররা জানায়।

এ ব্যাপারে ঝালকাঠি জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক শেখ আবু বকর সিদ্দিক জানালেন, আমড়া চাষে ঝালকাঠির কৃষকদের সাফল্যে ও ব্যাপক সম্ভাবনার কথা।

এ বছর ঝালকাঠি জেলায় এ বছর ৫০০ হেক্টর জমিতে আমড়ার চাষ হয়েছে। ফলনের লক্ষমাত্রা নির্ধারণ করেনি কৃষি বিভাগ। তবে কৃষি বিভাগের হিসেব অনুযায়ি এ মৌসুমে ঝালকাঠির এক একটি আমড়া গাছ থেকে বিক্রি হচ্ছে গড়ে তিন হাজার টাকার আমড়া।