মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণ

লোহাগাড়া প্রতিনিধি –
নড়াইলের লোহাগড়ায় দশম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রীকে অপহরণের পর ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর নানী বাদী হয়ে বাবুল মোল্লা নামের অভিযুক্তকে আসামি করে গতকাল বৃহস্পতিবার লোহাগড়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ২৭ সেপ্টেম্বর রাত ৮টার দিকে উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের ছত্রহাজারী গ্রামের স্থানীয় শরুশুনা মাদ্রাসার দশম শ্রেণির ছাত্রী তার বাড়ির পাশে ছিল। এ সময় ছত্রহাজারী গ্রামের ফুল মিয়ার বখাটে ছেলে বাবুল মোল্লা (২০) তাকে জোর করে মোটরসাইকেলে উঠায়। এরপর তাকে পার্শ্ববর্তী মেহগনি বাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। পুলিশ ওই ছাত্রীকে উদ্ধার করে আজ শুক্রবার ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য নড়াইল সদর হাসপাতালে পাঠায়।

লোহাগড়া থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে জানান তিনি।

ঠাকুরগাঁওয়ে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি

ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার উত্তরগাঁও গ্রামে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে দুই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন, একই গ্রামের সামশুল আলমের ছেলে মো. সবুর (২০) ও তার বড় ভাই ইকবাল (২৫)।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে অভিযান চালিয়ে নিজ বাড়ি থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

রাণীশংকৈল থানার ওসি আব্দুল মান্নান জানান, বিভিন্ন প্রলোভন দিয়ে প্রতিবেশী মেয়েটিকে দীর্ঘদিন ধরে ধর্ষণ করছে সবুর। ফলে মেয়েটি পাঁচ মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। এ ঘটনায় গত বুধবার রাতে মেয়েটির বাবা বাদী হয়ে ধর্ষণ মামলা করেন। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ি থেকে সবুর ও তার বড় ভাইকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল বিকেলে আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।