শনিবার পদ্মা নদীর বুকে প্রথমবারের মত মূল সেতুর পিয়ারে দৃশ্যমান হবে স্প্যান, আসবেন সেতুমন্ত্রী

মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, সময়ের কণ্ঠস্বর, মুন্সীগঞ্জ-

শনিবার পদ্মার পিয়ারে উঠবে স্প্যান, আসবেন মন্ত্রী। মাওয়ায়, বহু আলোচিত স্বপ্নের পদ্মাসেতুর মূল কাঠামোতে শনিবার প্রথম স্প্যান ওঠানো হচ্ছে। এর মাধ্যমে সেতুর এ কাঠামোটিই হবে প্রথম বারের মত দৃশ্যমান । ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে পদ্মা বহুমুখী সেতুর এই স্প্যানটি স্টিলের তৈরী গ্রে রংঙ্গের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের
এরকম ৪০টি স্প্যান তৈরী হবে। নদীর বুকে প্রথম জেগে ওঠা মূল সেতুর ৩৭ ও ৩৮ নং পিয়ারে স্প্যানটি বসানো হবে।

এই পিয়ার দুটির অবস্থান সেতুর (মাঝ) জাজিরা পয়েন্টের দিকে। এখানে উপস্থিত থাকছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ছবি – মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, সময়ের কণ্ঠস্বর, মুন্সীগঞ্জ-

মন্ত্রীর একান্তসূত্র জানায়, সরাসরি প্রথম স্প্যান ওঠানোর দৃশ্য টি দাঁড়িয়ে দেখবেন মন্ত্রী।তাই সেতু বিভাগ ইতোমধ্যে এ আয়োজনের প্রস্তুতি নিয়েছে পদ্মার পিয়ারে উঠছে স্প্যান।

সেতুর নির্মাতা প্রতষ্ঠিান চায়না মেজর ব্রিজের প্রকৌশলী সুত্রে জানাগেছে, পদ্মা সেতুর ৩৭ ও ৩৮ নম্বর পিলারে কংক্রিট শক্ত হয়ে জমাট বেধেছে। গত ১০ থকে ১২ দিন হয় কংক্রিট জোড়া দেয়ার কাজ হয়েছিলো। এখন পিয়ার দুটির উপরে ‘বিয়ারিং’ লাগানো হচ্ছে। এই বিয়ারিংয়ের উপর গেঁথে থাকবে স্প্যান।

ইতোমধ্যে ক্রেনে করে মাওয়া থেকে স্প্যানটি আনাহয় ৩১ ও ৩২ নম্বর পিয়ারের মাঝখানে এটি অবস্থান করেছিল । আর স্প্যান যে দুটি পিয়ারে বসানো হবে তার আশপাশ ড্রেজিং করে স্প্যান বহনরে প্রক্রিয়ায় ছিল গত দুদিন।

ছবি- মোঃ রুবেল ইসলাম তাহমিদ, সময়ের কণ্ঠস্বর, মুন্সীগঞ্জ-

পদ্মার দুই পিয়ারে তুলে দেয়া হলেই নির্মাণাধীন পদ্মাসেতুতে সুপার স্ট্রাকচার দৃশমান হয়ে যাবে।

পদ্মাসেতু-সংশ্লিষ্টরা জানায়, ৩৭ এবং ৩৮-এর পরে ৩৯ এবং ৪০ নাম্বার পিয়াররে কাজও খুব শিগগরিই শেষ হবে এবং আরও দুটি স্প্যান বসানো সম্ভব হবে।
সূত্র আরও জানায়, পদ্মা নদীর মধ্যে ৪০টি পিয়াররে (প্রতি পিয়ারে ৬টি করে পাইল) থাকা ২৪০টি পাইলরে মধ্যে ড্রাইভ শেষ হয়েছে ৭৫টি পাইলরে। এদেরর মধ্যে ৫৫টির ড্রাইভ পুরোপুরি শেষ।