শ্রীপুরে শোরুম ম্যানেজারের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

মোশারফ হোসাইন তযু, শ্রীপুর প্রতিনিধি: গাজীপুরের শ্রীপুরে সুজন ইলেকট্রনিক্স শো রুম ম্যানেজারের বিরুদ্ধে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এ ঘটনায় শো রুমের মালিক রুহুল আমিন সুজন বাদী হয়ে ম্যানেজার মোঃ সবুজ রানার বিরুদ্ধে (৩০ সেপ্টেম্বর) শনিবার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ থেকে জানা যায়, উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের বেলতৈল গ্রামের ফজল মিয়ার ছেলে সবুজ রানা (২৫) মাওনা চৌরাস্তায় মালেক মাস্টার কমপ্লেক্স এর দ্বিতীয় তলায় সুজন ইলেকট্রনিক্স শো রুমে দীর্ঘদিন ধরে ম্যানেজারের দায়িত্বে ছিলেন। ঈদুল আযহায় এক সপ্তাহের ছুটি নিয়ে বাড়িতে যায়। ছুটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেলেও রানা শোরুমে যোগদান না করায় মালিক তার বাড়িতে গিয়ে শোরুমে আসার জন্য বলে কিন্তু রানা আসতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে শোরুমের হিসাব বুঝাতে বললে সে বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করে। পরে মালিক নিজেই শোরুমের হিসাব খতিয়ে দেখে শোরুমের বিভিন্ন মালামাল বিক্রি করে টাকা আত্মসাত করেছে রানা।

এবং তার আত্মীয় স্বজনের কাছে মালিকের অজান্তে বাকিতে টিভি, ফ্রিজ, মোবাইল বিক্রি করে রেখেছেন যার টাকা সে আস্তে আস্তে তুলে খাচ্ছে। বিভিন্ন সময় স্থানীয় দোকানদারের কাছ থেকে শোরুমের কথা বলে তার নিজের জন্য বাকিতে মালামাল ক্রয় করেছেন। এ ঘটনায় স্থানীয়দের অবহিত করা হলে রানা শোরুম মালিক সুজনকে বিভিন্ন ভাবে হুমকি প্রদান করে আসছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শোরুম মালিক রুহুল আমিন সুজন সময়ের কন্ঠস্বরকে বলেন, সবুজ রানা আমার শোরুমে প্রায় তিন বছর ধরে ম্যানেজার পদে চাকুরি করে আসছে। অত্যান্ত সরল ভাবে তাকে বিশ্বাস করিতাম। আমার সরলতার সুযোগ নিয়ে সে আমার সাথে প্রতারণা করেছে। একবার সে আমাকে না জানিয়ে প্রায় চল্লিশ হাজার টাকা খরচ করে ফেলে তাকে টাকার কথা জিজ্ঞেস করলে খরচ করার কথা স্বীকার করে এবং পরিশোধ করে দিবে এবং ভবিষ্যৎতে এমন ঘটনা ঘটাবেনা বলে শোরুমের প্যাডে অঙ্গীকার নামা করেন। তিনি আরও বলেন, রানা আমার শোরুম থেকে প্রায় দুই লক্ষ টাকা আত্মসাত করে নিয়ে গেছে বলে অভিযোগ করেন।

অভিযুক্ত ম্যানেজার টাকা আত্মসাতের কথা অস্বীকার করে বলেন, আমার ভালো লাগেনা শোরুম থেকে চলে আসছি। টাকা আত্মসাতের কোন ঘটনা ঘটেনি বলে জানান।