শাকিব খানকে রাজনীতিতে আসার আহ্বান জানালেন শেখ হাসিনার তথ্য উপদেষ্টা

সময়ের কণ্ঠস্বর ~  শাকিব খান একজন জনপ্রিয় বাংলাদেশী চলচ্চিত্র অভিনেতা।তার প্রকৃত নাম মাসুদ রানা হলেও তিনি শাকিব খান নামে চলচ্চিত্রাঙ্গনে আবির্ভূত হয়ে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত অনন্ত ভালোবাসা ছায়াছবির মাধ্যমে তার অভিনয় জীবন শুরু করেন। কিন্তু ছবিটি তাকে খ্যাতির চূড়ায় পৌছাতে সাহায্য না করলেও ক্যারিয়ারের ২য় বছরেই সেসময়ের হার্টথ্রুব ও নাম্বার ১ নায়িকা শাবনূর এর বিপরীতে অভিনয় করে আলোচিত হয় এবং খুব তাড়াতাড়ি শাবনূর-শাকিব খান জুটি বাংলা সিনেমার অন্যতম ব্যবসাসফল ও প্রযোজকদের আস্থাভাজন জুটিতে পরিণত হয়। বহু চড়াই উৎরাই পেরিয়ে শাকিব খান বাংলাদেশ চলচ্চিত্র ইতিহাসে সবচেয়ে সফল এবং সর্বোচ্চ বেতনভোগী অভিনেতা হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী চিত্রনায়ক শাকিব খানকে রাজনীতিতে আসার আহ্বান জানিয়েছেন।  সোমবার (২ অক্টোবর) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে ‘চলচ্চিত্র ফোরাম’র যাত্রা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহ্বান জানান।

অতিথি আসনের সারিতে বসে থাকা শাকিব ইকবাল সোবহান চৌধুরীর কথা শুনে মুচকি মুচকি হাসেন। তবে এ ব্যপারে শাকিব খানের কোন প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

বক্তব্যকালে ইকবাল সোবহান চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের জনপ্রিয় নায়ক শাকিব। শাকিব বেশ ভালো বক্তব্য দিতে পারে। আবার কথার আগুনও ঝরাতে পারেন। সে যদি রাজনীতিতে আসে আমার মনে হয় আরো বেশি জনপ্রিয়তা পাবে। আমি শাকিবকে রাজনীতে আসার আহ্বান জানাচ্ছি।

ফাইল ছবি

 

অনুষ্ঠানটির উপস্থাপনায় ছিলেন অভিনেত্রী মৌসুমী ও নুসরাত ফারিয়া।

ইকবাল সোবহান চৌধুরী আরো বলেন, যারা এই চলচ্চিত্র ফোরাম সংগঠনের সাথে রয়েছেন সবাই চলচ্চিত্রের জন্য কাজ করবেন আশা করি। সবাই একত্রে হয়ে কাজ করবেন। আপনাদের কাছ থেকে যেন অন্যরা শিখতে পারে সেই ভাবে কাজ করবেন। আর সেই বিগত দিনের সোনালী চলচ্চিত্রকে ফিরিয়ে আনতে পারি সেই ভাবে কাজ করতে পারি। আপনাদের ভালো কাজ করতে হবে।

এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, শাকিব খান, কাজী হায়াত, সুবর্ণা মুস্তাফা, মেহের আফরোজ শাওন, ওমর সানি, সৌদ, সৈয়দ হাসান ইমামসহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য  তিনি ২০১০ সালে ভালোবাসলেই ঘর বাঁধা যায় না ২০১২ সালে খোদার পরে মা এবং ২০১৫ সালে আরো ভালোবাসবো তোমায় ছবির জন্য তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারের শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনেতার পুরস্কারে ভূষিত হন।