আবদুল ওয়াহহাব মিয়াকে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি করে গেজেট প্রকাশ

সময়ের কণ্ঠস্বর- ছুটিতে যাওয়া প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার জায়গায় ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্‌হাব মিয়া। সোমবার রাতে এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে আইন মন্ত্রণালয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেন, সংবিধানের ৯৭ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী কর্মে প্রবীণ হওয়ায় রাষ্ট্রপতি তাকে (আবদুল ওয়াহহাব মিঞা) ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। আজ মঙ্গলবার থেকে তিনি দায়িত্ব পালন করবেন।

জানা যায়, রবিবার বিকেল ৩টার দিকে এক মাসের ছুটি কথা জানিয়ে রাষ্ট্রপতি বরাবর চিঠি পাঠান প্রধান বিচারপতি। ওই চিঠির প্রেক্ষিতেই এ পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এর আগে সোমবার বিকেলে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত রেজিস্ট্রার (প্রশাসন ও বিচার) সাব্বির ফয়েজ জানান, আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি মো. আবদুল ওয়াহ্হাব মিয়া ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

অধস্তন আদালতের বিচারকের চাকরি শৃঙ্খলাসংক্রান্ত বিধিমালা ও ষোড়শ সংশোধনীর রায় নিয়ে বিচার বিভাগ ও নির্বাহী বিভাগের সঙ্গে টানাপোড়েনের মধ্যে এ ছুটির আবেদন করলেন প্রধান বিচারপতি।

এদিকে এক প্রশ্নের জবাবে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, কোনো চাপে নয়, এটা প্রধান বিচারপতির ব্যক্তিগত ছুটি। এ ছুটির সঙ্গে ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের কোনো সম্পর্ক নেই।

অন্যদিকে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেছেন, অবকাশ শেষে আদালত খোলার দিনে প্রধান বিচারপতির ছুটিতে যাওয়ার ঘটনা সুপ্রিমকোর্টের ইতিহাসে নজিরবিহীন।

আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞার জীবনী
বিচারপতি আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা ১৯৫১ সালের ১১ নভেম্বর জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৬ সালে তিনি সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে আইনজীবী হিসেবে তালিকাভুক্ত হন। ১৯৯৯ সালের ২৪ অক্টোবর তিনি হাইকোর্ট বিভাগে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে দায়িত্ব নেন। পরে ২০০১ সালের ২৪শে অক্টোবর হাইকোর্ট বিভাগে স্থায়ী বিচারক হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হন আবদুল ওয়াহ্হাব মিঞা। এরপর ২০১১ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি তিনি আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ প্রাপ্ত হয়ে বর্তমানে আপিল বিভাগের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি।

রবি