লাস ভেগাসে হামলাকারীর ছবি প্রকাশ, কে এই হামলাকারী?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক- আমেরিকার লাস ভেগাসে রুট নাইনটি ওয়ান নামের তিনদিনের কান্ট্রি মিউজিক ফেস্টিভালে ২২০০০ মানুষ জমায়েত হয়েছিল। গান চলাকালে হঠাৎ-ই শোনা যায় স্বয়ংক্রিয় বন্দুকের আওয়াজ।

নেভাডার বাসিন্দা স্টিফেন প্যাডক নামের এক বন্দুকধারী পাশের মান্দালে বে হোটেলের ৩২ তলা থেকে এলোপাথাড়ি গুলি ছুঁড়ে দেশটির ইতিহাসের সবচেয়ে বড় এই হত্যাকাণ্ড ঘটায়। খবর বিবিসির।

পুলিশ জানায়, হামলাকারীর নাম স্টিফেন প্যাডক। তার বয়স ৬৪ বছর। সে নেভাদার মেসকুইট এলাকার বাসিন্দা। মান্দালে বে হোটেলটি ছিল উন্মুক্ত কনসার্ট অনুষ্ঠানের পাশেই। আর সেখান থেকেই নির্বিচারে গুলি চালায় স্টিফেন প্যাডক । পুলিশের অভিযানের সময় সে আত্মহত্যা করে বলে জানা যায়।

হোটেলটির ৩২ তলার সেই কক্ষে আরও ১৬টি আগ্নেয়াস্ত্রের খোঁজ পায় পুলিশ। সেই সাথে তার বাসায় ১৮টি আগ্নেয়াস্ত্র এবং বিস্ফোরকের সন্ধান মিলেছে। আর তার গাড়িতে পাওয়া গিয়েছে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট-এর মতো রাসায়নিক। জানিয়েছেন শহরটির শেরিফ। তবে তার বিরুদ্ধে কোনও অপরাধমূলক কর্মখান্ডে জড়িত থাকার তথ্য নেই।

তার সাবেক একজন প্রতিবেশী জানান, তিনি একজন পেশাদার জুয়ারি। মার্কিন কর্মকর্তারা সংবাদ সংস্থা রয়টার্সকে জানান, হামলাকারীর মানসিক সমস্যার ইতিহাস ছিল বলে বিশ্বাস করার যথেষ্ট কারণ আছে।

হামলাকারীর ভাই এরিক প্যাডক তার ভাইয়ের এমন ঘটনায় জড়িত থাকায় বিস্ময় প্রকাশ করে বলেন যে, তাদের কোনও ধারণাই নেই কেন সে এমনটি ঘটিয়েছে। কনসার্টে গুলি বর্ষণের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৫৯জনে। আহত অন্তত ৫২৭জন।

এমন ঘটনা পুরো জাতি ঐক্যবদ্ধ হয়ে মোকাবিলা করবে বলে, উল্লেখ করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্প বলছেন, ‘এটা সাক্ষাত শয়তানের কাজ। এফবিআই এবং হোমল্যান্ড সিকিউরিটিজ এটি নিয়ে কাজ শুরু করেছে এবং স্থানীয় প্রশাসনও তাদের সাহায্য করছে।’

তদন্তকারীরা এই ঘটনার সাথে কোনও আন্তর্জাতিক উগ্রবাদী সংগঠনের সংশ্লিষ্টতার কথা স্বীকার না করলেও, ইসলামিক স্টেট বা আইএস গোষ্ঠী এর দায় স্বীকার করেছে। আইএস বলছে যে, এই হত্যাকারী স্টিফেন প্যাডক ছিল ধর্মান্তরিত মুসলিম।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বুধবার লাস ভেগাস সফরে যাবেন বলে জানিয়েছে হোয়াইট হাউজ।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি