নওগাঁয় ফোন করে হুমকি ও চাঁদা দাবি অব্যাহত, জনমনে আতঙ্ক

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই প্রতিনিধি: নওগাঁয় মোবাইল ফোনে অপরিচিত নম্বর থেকে কিছুদিন পর পর বিভিন্ন রকমের হুমকি-ধামকি প্রদান ও মোটা অংকের চাঁদা দাবি করায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। এখন নিজের মুঠোফোনে অপরিচিত নাম্বার থেকে ফোন আসলেই ভয়ে আঁতকে উঠছেন সবাই।

এছাড়াও আগের তুলনায় বর্তমানে নওগাঁয় এই ধরনের অপরাধমূলক কর্মকান্ড হচ্ছে বলে ভুক্তভোগীরা জানান। নিরাপত্তা পাবার আশায় অনেকেই আশ্রয় নিচ্ছেন থানায়। অনেকেই আবার অজ্ঞাত নামে সাধারণ ডায়রি (জিডি) করছেন।

জেলা সদরের চকপ্রসাদ এলাকার মোঃ সোলায়মান আলীর ছেলে ভুক্তভোগী মোঃ আব্দুস সালাম বলেন, গত এপ্রিল মাসে রাত অনুমান ৯টার সময় আমার মোবাইল ফোনে ০১৮৩৬৯৩৫৯৩৯ নম্বর থেকে ফোন আসে। ফোনের অপরপ্রান্ত থেকে কোন এক ব্যক্তি আমি সর্বহারা পার্টির কমান্ডার মেজর জিয়া পরিচয় দিয়ে আমার কাছ থেকে অর্থ চায়। আমি যদি তাকে অর্থ না দিই তাহলে সে আমার এবং আমার পরিবারের ক্ষতি করবে বলে আমাকে বিভিন্ন রকমের হুমকি-ধামকি প্রদান করতে থাকে।

এরপর আমি নওগাঁ সদর থানায় উক্ত নম্বর দিয়ে অজ্ঞাত নামে একটি সাধারণ ডায়রী লিপিবদ্ধ করি। যার (জিডি নং ১৩৬১, তারিখ: ২৭-০৪-১৭ইং)। এর বেশ কিছুদিন পরেই আমার ব্যাটারী চালিত অটো-রিক্সার গ্যারেজ থেকে প্রায় কয়েক লক্ষ টাকা মূল্যের ব্যাটারি চুরি হয়ে যায়।

তিনি আরো বলেন, এরই ধারাবাহিকতায় গত শনিবার বেলা ১১টার দিকে আমার মোবাইল ফোনে ০১৬৩৬-২৪৯০১৬ অজ্ঞাত নম্বর থেকে ফোন আসে। আমাকে ফোন দিয়ে পরিচয়হীন ব্যক্তি বলেন আমার অনেক লোকজন জেল হাজতে রয়েছে। তাদের জামিন করতে অনেক অর্থের প্রয়োজন। তাই তাদের অর্থ প্রদান করতে হবে। আমি যদি তাদের অর্থ প্রদান না করি তাহলে তারা আমার এবং আমার পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি করবেন এবং আমাকে হত্যার হুমকি-ধামকী প্রদান করেন। এমতাবস্থায় আমি চরম নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। উপায় না পেয়ে আবার থানায় গিয়ে একটি জিডি (নং ১৫৪২, তারিখ: ৩০-০৯-১৭) করেছি।

ভুক্তভোগী সালাম আরো বলেন, আমি জানি না। এবার আমার কী ক্ষতি হতে পারে। তাদের চাহিদা মতো অর্থ দেওয়ার সামর্থ্য নেই আমার। তাই বর্তমানে আমি এবং আমার পরিবারের সদস্যরা চরম নিরাপত্তাহীনতার ঝুঁকিতে দিন কাটাচ্ছি। শুধু সালাম নন, প্রতিদিনই নওগাঁ সদর মডেল থানায় এই রকম অজ্ঞাত নম্বর থেকে ফোন আসার কারনে নিরাপত্তার জন্য কেউ না কেউ সাধারণ ডায়রী লিপিবদ্ধ করছেন বলে থানায় কর্তব্যরত কর্মকর্তারা জানান।

জেলা সদরের শালুকা গ্রামের রহিম বক্সের ছেলে স্বর্ণ ব্যবসায়ী ভুক্তভোগী রফিকুল ইসলাম জানান, গত ২৯ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করে দুপুরে ০১৬৩৬-২৪৯০১৬ অজ্ঞাত নম্বর থেকে আমাকে ফোন দিয়ে মোটা অংকের অর্থ দাবি করা হয়। অর্থ না দিলে আমার এবং আমার পরিবারের সদস্যদের ক্ষতি করা হবে বলে বিভিন্ন রকমের হুমকি-ধামকি প্রদান করা হয়। এতে করে আমি চরম নিরাপত্তাহীনতায় রয়েছি। তাই বাধ্য হয়ে গত ৩০ সেপ্টেম্বর নওগাঁ সদর মডেল থানায় সাধারন ডায়রি (নং-১৫৪০, তারিখ: ৩০-০৯-১৭) করেছি। যার জিডি ।

একই ঘটনার ভুক্তভোগী জেলা সদরের খাস-নওগাঁর কাশেম আলীর ছেলে স্বর্ণকার শফিকুল ইসলাম ও হাট-নওগাঁর মৃত-এসএম মজিদের ছেলে চাল ব্যবসায়ী এটিএম আলমগীর হোসেন জানান, তাদেরকেও  ০১৬৩৬-২৪৯০১৬ অজ্ঞাত নম্বর দিয়ে ফোন করে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করা হয় এবং বিভিন্ন রকমের হুমকি-ধামকী প্রদান করা হয়। তারাও চরম নিরাপত্তাহীনতার কারণে উক্ত ফোন নম্বর দিয়ে অজ্ঞাত নামা ব্যক্তিদের নামে নওগাঁ সদর মডেল থানায় পৃথক পৃথক সাধারণ ডায়রি দায়ের করেছেন।

নওগাঁ সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ তরিকুল ইসলাম জানান, প্রতিনিয়তই থানায় এই রকম ঘটনায় সাধারণ ডায়রি লিপিবদ্ধ করা হচ্ছে। আমরা সেই অজ্ঞাত নম্বরগুলোর সন্ধান পাওয়ার কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। আশা রাখি অচিরেই অজ্ঞাত দুর্বৃত্তদের খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি প্রদান করতে পারবো।