অভয়নগরে বাস-ট্রাক সংঘর্ষে আহত- ৭

সোহাগ খান, অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি:

যশোরের অভয়নগরে যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে ৭ জন আহত হয়েছে। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাস ও ট্রাক নওয়াপাড়া হাইওয়ে থানা পুলিশ হেফাজতে রাখা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, গতকাল বুধবার ভোরে খুলনাগামী সৌখিন পরিবহন (ঢাকা মেট্রো ব-১৫-০১৬৮) যশোর-খুলনা মহাসড়কের নওয়াপাড়া রেল ষ্টেশনের সামনে ফুটপাতে দাড়িয়ে থাকা একটি খালি ট্রাক ( যশোর ট-১১-৩৯৪৫) এর পেছনে আঘাত হানে। এ সময় সৌখিন পরিবহনের সুপারভাইজর যশোর নরেন্দ্রপুরের জসিম উদ্দিন (৪০), হেলপার মনিরামপুরের মানিক (৩৫), যাত্রী খুলনা লবন চোরার হাতেম আলীর স্ত্রী ফাতেমা বেগম (৬৫), একই এলাকার আনোয়ার ফারাজী (৩৫), হাফিজুর রহমান (৫০), মনিরামপুরের সুমন (২৮) ও কুয়েটের শিক্ষার্থী তাজবীন (২২) আহত হয়। এলাকাবাসী ও নওয়াপাড়া ফায়ার সার্ভিস কর্মিদের সহযোগিতায় আহতদের উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে ৫ জনের অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন কর্তব্যরত ডাক্তার আহম্মেদ ফয়সাল পাভেল।

এ ব্যাপারে নওয়াপাড়া হাইওয়ে থানার ওসি আতাউর রহমান সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাক থানায় নেয়া হয়েছে। বাস চালকের অসাবধনতার জন্য এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। চালক পলাতক রয়েছে। বাসটির বিরুদ্ধে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

 

নওয়াপাড়ায় বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল উদ্ধার : জরিমানা

 

যশোরের অভয়নগর উপজেলার নওয়াপাড়ায় ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে একটি দোকান থেকে বিপুল পরিমান কারেন্ট জাল উদ্ধার করে জরিমানা আদায় করেছে।

উপজেলা মৎস্য অফিস সূত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার রাত ৮ টায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অভয়নগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এম এম মাহমুদুর রহমান ও উপজেলা সিনিয়র মৎস্য অফিসার বিশ্বজিৎ কুমার দেব নওয়াপাড়া বাজারের রমিজ স্টোরে অভিযান চালায়। অভিযানের এক পর্যায়ে দোকানের মধ্যে লুকিয়ে রাখা ৩ হাজার ৫শ’ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল উদ্ধার করে। এ সময় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট অবৈধ কারেন্ট জাল রাখার অপরাধে রমিজ স্টোর থেকে ২ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করে জব্দকৃত কারেন্ট জাল জনগণের সামনে পুড়িয়ে বিনষ্ট করেন।

এ ব্যাপরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নির্বাহী অফিসার এম এম মাহমুদুর রহমান সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, এ ধরণের অভিযান অব্যহত থাকবে। প্রয়োজনে কারেন্ট জাল বিক্রি ও রাখার অপরাধে ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে জেল-জরিমানা উভয় দন্ডে দন্ডিত করা হবে।