৫১ বছর বয়সে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হলেন নোকিয়ার চেয়ারম্যান

চিত্র বিচিত্র ডেস্ক- বিশ্ববিখ্যাত সেলফেন কোম্পানি নকিয়া করপোরেশনের চেয়ারম্যান রিসটো সিলাসমা ৫১ বছর বয়সে আবারও পড়াশোনা শুরু করেছেন। বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আলোচিত-কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বা আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স (এআই) বিষয়ে জানতে নতুন করে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছেন তিনি।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম সেরা বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় স্ট্যানফোর্ড পরিচালিত এআই প্রোগ্রামিং-বিষয়ক কয়েকটি অনলাইন কোর্সে ভর্তি হয়েছেন এই প্রযুক্তি ব্যবসায়ী। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হওয়ার পর বিষয়টি নকিয়ার বোর্ডসদস্য ও ব্যবস্থাপকদেরও জানিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে পাঠানো এক ই-মেইল বার্তায় রিসটো বলেছেন, ‘আমি এটা বুঝতে পারছি- এআই বিষয়ে আমার খুব গভীর জানা শোনা নেই। তাই ৩০ বছর পর আবার প্রোগ্রামিং নিয়ে পড়াশোনা করতে বিশ্ববিদ্যালয়ে ফিরে যাচ্ছি।’

নকিয়ার চেয়ারম্যান আরো বলেন, আমার কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা বিষয়ক প্রোগ্রামার হওয়ার কোনো ইচ্ছা নেই। তবে এ খাতে সক্ষমতা ও সীমাবদ্ধতার বিষয়গুলো আরও গভীরভাবে বুঝতে চাই।

তিনি বলেন, চলমান ‘শিল্পবিপ্লবে’র অন্যতম চালিকাশক্তি হবে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা। তাই আমি এ বিষয়ে সচেতনতা বাড়াতে চাই। ফিনল্যান্ডের মোবাইলফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান থেকে বিশ্বের বৃহত্তম টেলিকম নেটওয়ার্ক যন্ত্রাংশ নির্মাতা হিসেবে রূপান্তরে জন্য প্রশংসা কুড়িয়েছেন রিসটো সিলাসমা।

২০১৪ সালে মাইক্রোসফটের কাছে মোবাইল ফোনের ব্যবসা বিক্রি করে দেয় নকিয়া। তবে মাইক্রোসফটের কাছে গিয়েও নকিয়া ব্র্যান্ডটি মোবাইল ফোন ব্যবসায় পিছিয়ে পড়ে। সম্প্রতি ফিনল্যান্ডের এইচএমডি গ্লোবালের হাত ধরে নকিয়ার নামটি আবার ফিরে এসেছে। নকিয়া ব্র্যান্ডের মোবাইল ফোন তৈরি করছে এইচএমডি গ্লোবাল।

বর্তমানে আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেন্স স্বাস্থ্য, আর্থিক খাতসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রের ব্যবসায় মনোযোগ কাড়তে শুরু করেছে। বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে তথ্য বিশ্লেষণসহ নানা কাজে অ্যালগরিদম ব্যবহার করা হচ্ছে। নকিয়া এ ক্ষেত্রে পিছিয়ে থাকতে চায় না। উন্নত সফটওয়্যার তৈরি করে তথ্য বিশ্লেষণ করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি