মেসির হ্যাটট্রিকে বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক- হ্যাটট্রিক করে বাঁচামরার ম্যাচে জ্বলে উঠলেন আর্জেন্টিনার লিওনেল মেসি। নিজের কারিশমায় এগিয়ে নিলেন দলকে। আর্জেন্টিনা সরাসরি উঠে গেল রাশিয়া বিশ্বকাপে।

ম্যাচ দেখে যারা প্রথমে শঙ্কায় ভুগতে শুরু করেছিলেন, মেসির জাদুর ছোঁয়ায় ১২ মিনিটেই বদলে গেল দৃশ্যপট। অবশেষে সেই জাদুকর করলেন বিরল এক হ্যাটট্রিক। তার হ্যাটট্রিকেই শেষ পর্যন্ত ইকুয়েডরকে ৩-১ গোলে হারিয়ে সরাসরি বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করল আর্জেন্টিনা।

সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ৯ হাজার ফুট উপরে অবস্থিত ইকুয়েডর রাজধানী কুইটোয় শেষ পরীক্ষায় পূর্ণ মার্কই পেল আর্জেন্টাইনরা। বাঁচা-মরার লড়াইয়ে ম্যাচের ৪০ সেকেন্ডের মধ্যে পিছিয়ে পড়েছিল আর্জেন্টিনা। রোমারিও ইবারার গোলে লিড নেয় ইকুয়েডর। ব্যবধান খুব বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি স্বাগতিকরা।

১২তম মেসির নৈপুণ্যে সমতায় ফেরে আর্জেন্টিনা। ডি মারিয়ার বাড়ানো বল নিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়া মেসির হদিস পায়নি ইকুয়েডর রক্ষণভাগ। মুহূর্তেই বল চলে যায় জালে। এর আট মিনিট পর একাই আর্জেন্টিনাকে এগিয়ে দেন মেসি। পায়ে পায়ে বল নিয়ে দুর্দান্ত শটে স্কোরলাইন ২-১ করেন বার্সা সুপারস্টার।

২-১ ব্যবধান নিয়ে বিরতিতে যায় আর্জেন্টিনা। বিরতির পর আর্জেন্টিনার ওপর থেমে থেমে আক্রমণ চালায় ইকুয়েডর। শুরুতে কিছুটা চাপে থাকলেও লিওনেল মেসির জাদুকরী হ্যাটট্রিকে সব চাপ সরে গেল। প্রায় ৪০ গজ দূরে বল পান মেসি। তার সামনে প্রতিপক্ষের রক্ষণ দেয়াল। রীতিমত বোতলবন্দী লিও। তাতেও আটকানো যায়নি মেসিকে।

পায়ের জাদু দেখিয়ে ৬২তম মিনিটে ইকুয়েডরের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকে দেন লিও। দারুণ শটে গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে বল পাটিয়ে দেন ইকুয়েডরের জালে। পুরোপুরি মেসিময় করে তুললেন ম্যাচটা। আর্জেন্টিনাকে এনে দিলেন অসম্ভব, অবিশ্বাস্য এক জয়। এই জয়েই শেষ পর্যন্ত বিশ্বকাপ নিশ্চিত হলো আর্জেন্টিনার।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি