কলেজ ছাত্রীকে হত্যার দায়ে যুবকের যাবজ্জীবন

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলায় কলেজ ছাত্রীকে হত্যার দায়ে মেহেদী হাসান নামে এক যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ঝালকাঠির অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মোহাম্মদ বজলুর রহমান এ রায় দেন। একই সঙ্গে আসামিকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং এ টাকা পরিশোধ না করলে আরো তিন মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি এম আলম খান কামাল।

মামলার বিবরণে জানা যায়, নলছিটি উপজেলার দপদপিয়া ইউনিয়নের তিমিরকাঠি গ্রামের আবুল কালামের মেয়ে বরিশাল বিএম কলেজের অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী শারমিন আক্তারকে বিয়ের প্রস্তাব দেন প্রতিবেশী আবদুল খালেক মিয়ার ছেলে মেহেদী হাসান।

শারমিনের পরিবার বিষয়টি জানতে পেরে অন্যত্র তার বিয়ে ঠিক করেন। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে মেহেদী ২০১৩ইং সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি রাতে বসতঘরের পাশেই চাকু দিয়ে কুপিয়ে শারমিনকে হত্যা করেন।

এ ঘটনায় পরের দিন নিহত শারমিনের বাবা আবুল কালাম বাদী হয়ে নলছিটি থানায় মামলা দায়ের করেন। থানার তৎকালীন উপ-পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।

১৪ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষে আদালত রায় ঘোষণা করেন। রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করার কথা জানিয়েছেন আসামি পক্ষের আইনজীবী আবদুর রশীদ সিকদার।