শুক্রবার দেশ ছাড়ছেন প্রধান বিচারপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর- আগামীকাল শুক্রবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বিদেশ সফরে যাচ্ছেন। বিচারপতি সিনহা কাল বিকেলে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে তাঁর ঢাকা ছাড়ার কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। বৃহস্পতিবার দুপুরে আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রধান বিচারপতি আগামীকাল বিকেলে অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে বাংলাদেশ ত্যাগ করবেন বলে আমি জানি।’

এর আগে আজ সকালে প্রধান বিচারপতির বিদেশে যাওয়ার ব্যাপারে প্রজ্ঞাপন জারি করে আইন, সংসদ ও বিচারবিষয়ক মন্ত্রণালয়।

ছুটিতে থাকা প্রধান বিচারপতি বিদেশ যাওয়ার অনুমতি চেয়ে গত মঙ্গলবার যে আবেদনটি করেছেন, সেটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদনের পর রাষ্ট্রপতির অনুমোদনের জন্য বঙ্গভবনে যায়।

গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছিলেন, প্রধান বিচারপতির করা বিদেশ যাওয়ার আবেদনপত্রে অনুমোদন দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

এর আগে গত ৩ অক্টোবর থেকে ১ নভেম্বর পর্যন্ত এক মাসের ছুটিতে যান প্রধান বিচারপতি সিনহা। সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতি দাবি করেছে জোর করে প্রধান বিচারপতিকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। তবে তা অস্বীকার করেছে সরকার। এনিয়ে রাজনৈতিক মহলে তুমুল বিতর্ক চললেও বিচারপতি সিনহা কোনো কথা বলেননি।

জানা যাচ্ছে, এই ছুটিতে থাকাবস্থায় অস্ট্রেলিয়ার ভিসার জন্য আবেদন করেন তিনি ও তার স্ত্রী সুষমা সিনহা। অষ্ট্রেলিয়া দূতাবাস তাদেরকে তিন বছরের ভিসা দেয়। দেশটিতে তাদের বড় কন্যা সূচনা সিনহা বসবাস করছেন। বিদেশে গিয়ে প্রধান বিচারপতি সেখানে উঠবেন বলে জানা গেছে।

এদিকে এক মাসের ছুটিতে থাকাবস্থায় প্রধান বিচারপতি তার ছুটির মেয়াদ দশ দিন বাড়িয়েছেন। ছুটির মেয়াদ বৃদ্ধির বিষয়টিও মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে চিঠি দিয়ে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করা হয়েছে। সেই হিসাবে তিনি এখন ১০ নভেম্বর পর্যন্ত ছুটিতে থাকবেন। আগে তার ছুটির মেয়াদ ছিল পহেলা নভেম্বর পর্যন্ত।

প্রসঙ্গত, প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার বয়স বিচারে অবসরে যাওয়ার দিন ধার্য রয়েছে আগামী বছরের ৩১ জানুয়ারি। তিনি দায়িত্ব গ্রহণ করেছিলেন ২০১৫ সালের ১৭ জানুয়ারি। মেয়াদ শেষ হওয়ার ৩ মাস আগেই প্রায় দেড় মাসের ছুটিতে গেলেন তিনি। এর আগে গত ৮ থেকে ২৩ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত কানাডা ও জাপান সফরে যাওয়ার জন্য ১৬ দিনের ছুটি নেন প্রধান বিচারপতি।

রবি