প্রেমের টানে খালুর সঙ্গে স্কুলছাত্রীর পলায়ন, এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় প্রেমের টানে খালুর সঙ্গে এক স্কুলছাত্রীর পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার ৯ দিনপর বুধবার রাতে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে ফতুল্লা মডেল থানায় তাঁর ভগ্নিপতিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলো- চরনবীনগর এলাকার বাদল মিয়ার ছেলে নবী হোসেন তার ছোট ভাই কাউসার ও ছোট বোন সিমা।

স্কুল ছাত্রী সুরাইয়া আক্তার ফতুল্লার মুসলিমনগর বাজার এলাকার আতাউর রহমানের মেয়ে এবং মুসলিমনগর হাজী আব্দুল কাজী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৮ম শ্রেণীর ছাত্রী।

মামলার বাদী রোকেয়া বেগম জানান, নবী হোসেন সম্পর্কে আমার ভগ্নিপতি। সে প্রায় আমাদের বাসায় আসতো। ৩/৪ মাস ধরে নবী সুমাইয়াকে স্কুলে আসা যাওয়ার পথে বিয়ের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। সুমাইয়া প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় সে ক্ষিপ্ত হয়ে গত ২ অক্টোবর সন্ধ্যায় সুমাইয়া পাশ্বর্বর্তী বান্ধবীর বাড়িতে যাওয়ার পথে রাস্তা থেকে তাকে জোরপূর্বক ধরে নিয়ে যায়।

এলাকাবাসী জানান, নবী হোসেন ও সুমাইয়ার দীর্ঘদিন ধরে প্রেমের সম্পর্ক চলে আসছিল। হঠাৎ তারা পালিয়ে যাওয়ায় এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি কামাল উদ্দিন জানান, মামলাটির তদন্ত চলছে। পুলিশ স্কুল ছাত্রীকে উদ্ধার ও নবী হোসেনকে গ্রেফতারে সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে।