ভিলিয়ার্সের ঝড়ো ব্যাটিংয়ে কঠিন চ্যালেঞ্জের সামনে বাংলাদেশ

স্পোর্টস আপডেট ডেস্ক: দ্বিতীয় ওয়ানডেতে মারকুটে ব্যাটসম্যান এবি ডি ভিলিয়ার্সের ঝড়ো ব্যাটে ভর করে বাংলাদেশকে ৩৫৪ রানের টার্গেট দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকা।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ৩৫৩ রান করে স্বাগতিকরা।

দলের পক্ষে এবি সর্বোচ্চ ১৭৬ রান করেন। মাত্র ১০৪ বলে খেলা তার ইনিংসটি ৭টি ছক্কা ও ১৫টি চারের মারে সাজানো। এছাড়া হাশিম আমলা ৯২ বলে ৮৫, ডি কক ৪৬ রান করেন।

বাংলাদেশের হয়ে রুবেল হোসেন ৪ উইকেট নিয়ে সফল বোলার। এছাড়া সাকিব আল হাসান নেন ২টি উইকেট।

বুধবার পার্লে টসে জয়লাভ করেন টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা। তিনি প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেন।

প্রোটিয়াদের দুই ওপেনার প্রথম ওয়ানডে ম্যাচের মতো দ্বিতীয়টিতেও দেয়াল হয়ে দাঁড়ান। এই জুটি সংগ্রহ করে ৯০ রান।

এরপর আঘাত হানেন সাকিব আল হাসান।

আগের ম্যাচে সেঞ্চুরি করা কুইনটন ডি কককে ইনিংসের ১৮তম ওভারের তৃতীয় বলে লেগ বিফোরের ফাঁদে ফেলেন তিনি। ডি কক ৪৬ রান করেন।

ওই ওভারের শেষ বলে কোনো রান না করেই সাজঘরে ফেরেন প্রোটিয়া অধিনায়ক ফাফ ডু প্লেসিস। সাকিবের বলে সরাসরি বোল্ড হন তিনি।

এরপর প্রতিরোধ গড়েন আমলা-এবি। আমলা-ভিলিয়ার্সের প্রতিরোধ ভাঙেন পেসার রুবেল হোসেন। তাদের জুটিতে আসে ১৩৬ রান।

আমলা ৯২ বল খেলে ৮৫ রান করে রুবেলের বলে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেন। তার ইনিংসটি ৪টি চারের মারে সাজানো।

এরপর শুরু হয় ভিলিয়ার্সের তাণ্ডব। ৬৮ বলে সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন এবি। শতরান করতে ১০টি চার ও ১টি ছক্কা হাঁকান এ ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

একসময় মনে হয়েছিল ডাবল সেঞ্চুরি করে অপরাজিত থেকে মাঠ ছাড়বেন তিনি। তবে তাকে ফিরিয়ে বাংলাদেশ শিবিরে কিছুটা হলেও স্বস্তি এনে দেন রুবেল হোসেন। এবিকে অন্তত ডাবল সেঞ্চুরি বঞ্চিত করতে পেরেছেন তিনি।

এবি মাত্র ১০৪ বল খেলে ৭টি ছক্কা ও ১৫টি চারের সাহায্যে ১৭৬ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেন। যা তার ক্যারিয়ার সেরা ইনিংস।

ইনিংসের শেষ ওভারের চতুর্থ বলে ডুমিনি ৩০ রানে আউট হন। ডুমিনিকে ফেরান রুবেল। লেগ বিফোরের ফাঁদে পড়েন তিনি। পরে বলেই আউট হন প্রিটোরিয়াস। রুবেলের চতুর্থ শিকার হন তিনি।

সিরিজে সমতা ফেরাতে এই ম্যাচে জয়ের কোনো বিকল্প নেই। প্রথম ম্যাচে ১০ উইকেটে জয় পায় দক্ষিণ আফ্রিকা।