দুই শর্তে জামিন পেলেন খালেদা জিয়া

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, সময়ের কণ্ঠস্বর- জিয়া চ্যারিটেবল ও জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলায় বিশেষ আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেয়েছেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার পুরান ঢাকার বকশীবাজারের কারা অধিদফতরের প্যারেড মাঠে স্থাপিত অস্থায়ী ঢাকার পাঁচ নম্বর বিশেষ জজ ড. মো. আকতারুজ্জামানের আদালত দুটি শর্তে খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেন।

শর্ত দুটি হলো- প্রথমত দুই মামলায় এক লাখ টাকা করে বন্ড এবং দুজন জামিনদার হতে হবে; দ্বিতীয়ত চিকিৎসার জন্য বিদেশে গেলে আদালতের অনুমতি নিতে হবে।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসা মাঠে স্থাপিত ঢাকার ৫নং বিশেষ জজ ড. আখতারুজ্জামানের আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে জামিন আবেদন করেন ব্যারিস্টার জমির উদ্দীন সরকার। অপর দিকে জামিনের বিরোধিতা করেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল। আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত খালেদা জিয়ার জামিন মঞ্জুর করেন।

এর আগে সকাল সাড়ে ১০টার দিকে গুলশানের বাসা থেকে খালেদা জিয়া আদালতের উদ্দেশে বের হন। বেলা সোয়া ১১টার দিকে তিনি আদালতে হাজির হন। এ সময় বিএনপি ও এর অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার গাড়িবহরের সঙ্গে ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে খালেদা জিয়ার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া বলেন, ‘আদালত উভয় পক্ষের শুনানি শেষে খালেদা জিয়ার জামিনের আদেশ দেন। তবে আদালত বলেছেন, মামলা চলাকালে ভবিষ্যতে বিদেশে যেতে হলে আদালতের অনুমতি নিতে হবে’

ঢাকার পঞ্চম বিশেষ জজ আদালতে জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার কাজ চলছে। নির্ধারিত তারিখে হাজির না থাকায় গত ১২ অক্টোবর এই দুটি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন বাতিল করে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

একই দিনে পতাকা অবমাননার অভিযোগে করা মামলায় ঢাকার অন্য একটি আদালত খালেদার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। এর আগে গত ৯ অক্টোবর কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে একটি মামলায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে পরোয়ানা জারি করেন আদালত।

গত ১৫ জুলাই খালেদা জিয়া যুক্তরাজ্যে যান। সেখানে বড় ছেলে তারেক রহমানের বাসায় থেকে চোখ ও পায়ের চিকিৎসা নেন তিনি। খালেদা জিয়া লন্ডনে থাকা অবস্থায় ঢাকা ও কুমিল্লার নিম্ন আদালতে তার বিরুদ্ধে তিনটি মামলায় গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়। তিন মাস লন্ডনে অবস্থানের পর গতকাল বুধবার বিকালে দেশে ফেরেন বিএনপি চেয়ারপারসন।

রবি