দুটি ‘মহৎ উদ্দেশ্য’ নিয়ে সারাদেশের শতাধিক হলে চলছে ডিপজল-মৌসুমীর ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’

বিনোদন প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর:

হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে সিঙ্গাপুরের মাউন্ট এলিজাবেথ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। আরো দুই মাস তাঁকে সেখানেই থাকতে হবে। এদিকে বিদেশে যখন তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন তখন দুটি মহৎ উদ্দেশ্যে দেশের ১২৮টি সিনেমা হলে মুক্তি পেয়েছে তাঁর অভিনীত চলচ্চিত্র ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’। ছবিটি পরিচালনা করেছেন মনতাজুর রহমান আকবর। ছবিতে আরো আছেন মৌসুমী, বাপ্পী, মিম, আহমেদ শরিফ, অমিত হাসান, দিলারা, অরুনা বিশ্বাস, নাদির খান, শবনম পারভিন, ইলিয়াস কোবরা ও সুব্রত।

এর কর্ণধার নাদির খান জানান, দুলাভাই জিন্দাবাদ চলচ্চিত্রটি যদি লাভের মুখ দেখে তবে ওই লভ্যাংশ দু’ভাগ করা হবে। এর একটি অংশ দেয়া হবে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজে। অন্য অংশটি প্রতিবন্ধী, অসহায় মানুষদের সাহায্যে ব্যয় করা হবে।

ছবির পরিচালক মনতাজুর রহমান আকবর বলেন, ‘আমরা ছবিটি দেশের ১২৮টি সিনেমা হলে মুক্তি দিয়েছি। আরো অনেক বেশি হল আমরা পেয়েছিলাম, কিন্তু যেসব সিনেমা হলে ছবি দেখার পরিবেশ আছে আমরা সেই হলগুলোতেই ছবিটি মুক্তি দিয়েছি। দর্শক ছবি দেখতে চায়, কিন্তু ভালো ছবি এবং ভালো সিনেমা হলের অভাব রয়েছে আমাদের। আমি পরিচালক হিসেবে ভালো ছবি উপহার দিতে পারব, কিন্তু নিজেদের সিনেমা হলগুলো ঠিক করে, ছবি দেখার পরিবেশ করে দেওয়ার জন্য হল মালিকদের অনুরোধ করছি।’

ডিপজলকে নিয়ে আকবর বলেন, “মনোয়ার হোসেন ডিপজল বাংলাদেশের জনপ্রিয় একটি নাম। তিনি চলচ্চিত্রে ব্যাপক জনপ্রিয়। দর্শক উনার ছবি দেখতে চান, সেটা বারবার প্রমাণিত হয়েছে, আশা করি এবারও তা হবে। কারণ দর্শক সুন্দর একটি গল্প, অভিনয় দেখতে চায়, আমাদের ছবিতে সুন্দরে একটা গল্প আছে, অভিনয় শিল্পীদের মধ্যে ডিপজল, মৌসুমী, বাপ্পী, মিম এরই মধ্যে অভিনয় গুণের জন্য প্রশংসিত।’

দীর্ঘদিন পর তারকাবহুল ছবি দাবি করে আকবর বলেন, ‘আমাদের দেশে এক সময় তারকাবহুল ছবি মুক্তি পেত, যা বেশ কয়েক বছর ধরেই হচ্ছে না, অনেক তারকা নিয়ে ছবি বানাতে যে টাকা খরচ হয় তা করার মতো সাহস নেই অনেক প্রযোজকেরই। কিন্তু আমাদের এই ছবিটি তারকা বহুল একটি ছবি, যা দর্শক পছন্দ করবে।’

ডিপজল ভালো আছেন জানিয়ে আকবর বলেন, ‘ডিপজল সাহেব এখন ডাক্তারের পরামর্শে সময় কাটাচ্ছেন, আগামী দুই মাস তিনি সিংগাপুরে অবস্থান করবেন। সবাই তার জন্য দোয়া করবেন, আর ছবিটি দেখে উৎসাহ দেবেন।’

ছবিটি প্রসঙ্গে মিম বলেন, সন্তান কেমন হবে, সেটা কিন্তু আগে থেকেই জানতে পারেন না মা-বাবা। চলচ্চিত্রের বিষয়টাও ঠিক তেমন। ক্যামেরার সামনে নিজেকে আমি উজাড় করে দিয়েছি, বাকি কাজগুলো তো আমার হাতে নেই।

ছবিটির চিত্রনাট্য ও সংলাপ লিখেছেন আবদুল্লাহ জহির বাবু। গেল ফেব্রুয়ারিতে দুলাভাই জিন্দাবাদ ছবির শুটিং শুরু হয়। গেল আগস্টে ছবিটি আনকাট সেন্সর ছাড়পত্র লাভ করে। গ্রামীণ প্রেক্ষাপট ঘিরে পারিবারিক আবেগ-অনুভূতি নিয়ে নির্মিত হয়েছে ‘দুলাভাই জিন্দাবাদ’ নামের ছবিটি। চলচ্চিত্রটি নির্মিত হয়েছে রাজেস ফিল্মসের ব্যানারে।

গত বছরের এপ্রিল মাসে ডিপজল অভিনীত ও জাকির হোসেন রাজু পরিচালিত ‘অনেক দামে কেনা’ ছবিটি মুক্তি পেয়েছিল।