সুষমার ঢাকা সফরে বিএনপির সঙ্গে বৈঠকে ‘পাল্টে যাবে আগামী নির্বাচনের সব হিসেব নিকেশ!

সময়ের কণ্ঠস্বর: সুষমা স্বরাজের আসন্ন ঢাকা সফর শুধু রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধান কিংবা চতুর্থ যৌথ পরামর্শ কমিটির মধ্যে সীমাবদ্ধ থাকবে না। বৈঠক হবে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গেও। আলোচনা হবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন নিয়ে।

সোমবার ঢাকা সফরে আসছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ চতুর্থ যৌথ পরামর্শ কমিটির বৈঠকে যোগ দিতে দু’দিনের সফর এটি। আগামী নির্বাচনকে সামনে সুষমার এই সফরকে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা।

কূটনৈতিক সূত্র বলছে, চলমান রোহিঙ্গা সঙ্কট সমাধান ও তিস্তা ইস্যু ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এই সফরে প্রাধান্য পাবে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ সফরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রীদের সাথে বৈঠকের কথা রয়েছে।

এ ছাড়া দেশের প্রধান রাজনৈতিক বিরোধী দল বিএনপির চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সুষমা স্বরাজের বৈঠক হবে । ইতিমধ্যেই বিএনপি নেতারা সুষমা স্বরাজের সাথে সেই বৈঠকের আলোচ্য বিষয় ঠিক করতে কাজ প্রায় শেষ করছেন।

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, সুষমা স্বরাজের সঙ্গে বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার এই বৈঠক সফল হলে পাল্টে যাবে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের সব হিসেব নিকেশ।

খালেদা জিয়ার সঙ্গে সুষমা স্বরাজের বৈঠক হওয়ার সম্ভবনার কথা কদিন আগেই জানিয়েছে ভারতের বাংলা দৈনিক আনন্দবাজার পত্রিকা। তাদের এক রিপোর্টে বলা হয়েছে, ঢাকা সফরে গিয়ে বেগম জিয়ার সাথেও বৈঠকে বসতে চলেছেন বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ।

বিএনপির একাধিক নেতা জানান, বেগম খালেদা জিয়ার সাথে সুষমা স্বরাজের ‘বৈঠক হবে’ এনিয়ে বিএনপি আশাবাদী। এরই মধ্যে চোখ ও পায়ের চিকিৎসা শেষে প্রায় তিন মাস পর যুক্তরাজ্য থেকে গত ১৮ অক্টোবর দেশে ফিরেছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

সূত্র জানায়, দুই দিনের এই সফরে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ভারতের অর্থায়নে বাস্তবায়ন করা ১৫ টি উন্নয়ন প্রকল্পের উদ্বোধন করবেন। সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরে এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে নেয়া সিদ্ধান্তগুলোর বাস্তবায়ন নিয়ে পর্যালোচনা হবে। গত এক মাসের মধ্যে দ্বিতীয়বারের মতো ভারতের কোনো শীর্ষ মন্ত্রী বাংলাদেশ সফরে আসছেন। এর আগে আসেন ভারতের অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি। ২০১৫ সালের জুনে প্রধানমন্ত্রী মোদী বাংলাদেশ সফর করেন। চলতি বছরের এপ্রিলে ভারত সফরে যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। যৌথ কমিশনে সভাপতিত্ব করবেন সুষমা স্বরাজ এবং বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী। বৈঠকে তিস্তা পানি বন্টন চুক্তি নিয়েও আলোচনা হবে।