মিসরে সন্ত্রাসী হামলায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩০

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

মিসরের পশ্চিমাঞ্চলীয় মরু এলাকা গিজায় সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীদের ধরতে অভিযানের সময় একটি অ্যামবুশে পড়ে পুলিশ। এতে অন্তত ৩০ জন পুলিশ সদস্য নিহত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সরকারের পক্ষ থেকে অবশ্য ১৬ জন নিহত হওয়ার খবর স্বীকার করা হয়েছে।

পুলিশের একটি অভিযান চলাকালে এ হামলার ঘটনা ঘটে। শুক্রবার রাতে রাজধানী কায়রোতে একাধিক হামলায় অভিযুক্ত হাসম গ্রুপের সদস্যদের খোঁজে একটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযানের সময় পুলিশ সদস্যদের ওপর গুলি চালানো হয়। খবর আলজাজিরা।

খবরে বলা হয়েছে, সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করতে অভিযানে গেলে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে সন্ত্রাসীরা। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে। এতে সন্ত্রাসীদের ছোড়া গুলিতে ১৬ পুলিশ সদস্য নিহত হন।

দেশটির দুটি নিরাপত্তা সংস্থা জানিয়েছে, পুলিশের কাছে গোপন খবর ছিল মরু এলাকায় সন্ত্রাসীরা লুকিয়ে রয়েছে। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালালে হামলাকারীরা বিস্ফোরক অস্ত্রশস্ত্র ব্যবহার করে হামলা চালায়। এ সময় দুই পক্ষের মধ্যে বেশ কিছুক্ষণ গুলিবিনিময় হয়।

মিসরের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানায়, হামলায় বেশ কয়েকজন পুলিশ সদস্য নিহত ও আহত হয়েছেন। ক্রসফায়ারে নিহত হয়েছে কয়েকজন সন্ত্রাসীও।

প্রাথমিকভাবে ১৬ জন পুলিশ কর্মকর্তার মৃত্যু নিশ্চিত করলেও এই সংখ্যা ৩০ বা তার বেশি হতে পারে বলে জানা গেছে।

সম্প্রতিক সময়ে দেশটিতে মূলত পুলিশ ও সেনাবাহিনীকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটছে। ২০১৩ সালে সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ মুরসির পতনের পর থেকে এ ধরনের হামলার ঘটনা বেড়ে গেছে। সেই সময় থেকে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন হামলা, সঘর্ষ ও বন্দুকযুদ্ধে শতাধিক পুলিশ ও সেনা সদস্য নিহত হয়েছেন।