১৪ দিনেও খোঁজ মেলেনি সাংবাদিক উৎপলের, শঙ্কায় পরিবার

সময়ের কণ্ঠস্বর- এক অজানা শঙ্কায় দিন কাটছে অনলাইন নিউজ পোর্টাল পূর্বপশ্চিমবিডি.নিউজের সিনিয়র রিপোর্টার উৎপল দাসের পরিবারের সদস্যদের। ১৪ দিন অতিবাহিত হলেও সন্ধ্যান মিলেনি তার।

এদিকে পুত্রের সন্ধানে নরসিংদী থেকে ঢাকায় ছুটে এসে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন উৎপলের বাবা চিত্ত রঞ্জন দাস। পরে অসুস্থ অবস্থায় আজ সোমবার মতিঝিল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করে নরসিংদী ফিরে গেছেন।

চিত্ত রঞ্জন দাস জানান, গত ১০ ই অক্টোবর দুপুরে তার পুত্রের সাথে সর্বশেষ তার মা বিমলা রানী দাসের কথা হয়েছিলো মোবাইল ফোনে। তখন উৎপল অফিসে ছিল। এরপর বিকেল থেকে তার মোবাইল ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। তার আর কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি। ফকিরাপুলের এক নম্বর গলিতে যে বাসায় সে ভাড়া থাকতে সেখানেও ফেরেনি। আত্মীয় স্বজন, বন্ধুবান্ধব, সহকর্মী কেউ উৎপলের কোন খবর জানে না। তাকে খুঁজে না পেয়ে আমার পুরো পরিবার শঙ্কার মধ্যে রয়েছে।

তিনি জানান, আমাদের সঙ্গে কারো কোনো বিরোধ, শত্রুতা নেই। তাই কেউ আমার ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে বা তুলে নিয়ে গেছে- এমন সন্দেহও করতে পারছি না। উৎপলের কোনো খবর না পেয়ে তার প্রাণ সংশয়ের আশঙ্কাও করছি।

এর আগে রোববার নিখোঁজ উৎপল দাসের সন্ধান চেয়ে মতিঝিল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করেন পূর্বপশ্চিমের সম্পাদক খুজিস্তা নূর-ই-নাহারিন। তিনি জানান, গত ১০ অক্টোবর দুপুর ১টার দিকে কাজ শেষে অফিস থেকে বের হন উৎপল দাস। এরপর থেকেই তিনি নিখোঁজ। এগারো তারিখ থেকে তিনি অফিসে আসেন নি।

মতিঝিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. ওমর ফারুক বলেন, সাংবাদিক উৎপল দাস নিখোঁজের ঘটনায় দুটি সাধারণ ডায়েরী লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। এখন আইনগতভাবে তার সন্ধান পেতে যা যা করণীয় আমরা তা করছি।

রবিউল ইসলাম (রবি)