লোকসংগীত উৎসব রুচি বিকাশের এক বিশাল মাধ্যম: অর্থমন্ত্রী

১০:০২ পূর্বাহ্ণ | শুক্রবার, নভেম্বর ১০, ২০১৭ জাতীয়

বিনোদন প্রতিবেদক, সময়ের কণ্ঠস্বর- মধ্য দুপুর গড়িয়ে অস্ত গেলো বেলা। সূর্যের মিষ্টি তেজ লজ্জায় মুখ লুকাতেই বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে আলো জ্বলে উঠলো আবার। উজ্জল অস্তিত্বে আবার জানান দিলো শেকড়ের টান।

জীবনের দর্শন খুঁজতে আসা সীমানা ছাড়ানো লোকজ গানে। তৃতীয়বারের মত দক্ষিণ এশিয়ার সবচাইতে বড় লোকসংগীত উৎসব, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট, আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭ এর পর্দা উন্মোচন হলো বৃহস্পতিবার সন্ধায়।

৯ নভেম্বর, বাংলাদেশ আর্মি স্টেডিয়ামে শুরু হওয়া নিজেকে চেনার অনন্য এই উৎসবে দর্শকরা উপভোগ করেছেন বিশ্বের সেরা লোকসংগীত শিল্পীদের পরিবেশনায় শেকড় সন্ধানী গানগুলো। বাংলার শেকড়ে ছড়িয়ে থাকা এই গানকে বিশ্বের দরবারে পরিচিত করতেই তৃতীয় পর্বের আয়োজন, ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট, আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭।

আজ এই উৎসব শুধু দেশে নয়, দেশের বাইরেও সমানভাবে জনপ্রিয়। বাংলার এই জনপ্রিয় লোকসংগীত উৎসবের ডাক উঠেছে পশ্চিমা দেশগুলোতেও। দেশজুড়ে সাড়া জাগানো নিজেকে চেনার উৎসব ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট ২০১৬ এর সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতেই তৃতীয়বারের মতন সান কমিউনিকেশনস্ আয়োজন করেছে তিন দিনব্যাপী মেরিল নিবেদিত ‘ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ফোকফেস্ট, আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব ২০১৭’।

জাকজমকপূর্ণ এই অনুষ্ঠানের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্য দিয়েছেন সান কমিউনিকেশনস্ এর চেয়ারম্যান জনাব অঞ্জন চৌধুরী। তিনি বলেন ‘গত দুই বছরের সাফল্যের ধারা অব্যাহত রাখতে এবারও এই আয়োজন। পুরো বিশ্বের মানুষ মাছরাঙ্গা টেলিভিশনের কারণে এখন ঢাকা আন্তর্জাতিক লোকসংগীত উৎসব দেখছে তাই এই লোকসংগীত উৎসব আমাদের গর্ব, আপনাদের গর্ব এবং পুরো দেশের গর্ব।’

উৎসবে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ, কূটনীতিক, ভাষাসৈনিক ও মুক্তিযোদ্ধা অর্থমন্ত্রী জনাব আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অনুষ্ঠানের উদ্বোধনের শুরুতে তিনি বলেন, ‘তৃতীয়বারের মত এই লোকসংগীত উৎসবের প্রধান অতিথি হতে পেরে আমি গর্বিত। এই জন্য অঞ্জন চৌধুরী’কে অনেক অনেক ধন্যবাদ। রুচি কেউ জন্ম থেকে পায় না। এটাকে অর্জন করতে হয় আর এই লোকসংগীত উৎসব রুচি বিকাশের এক বিশাল মাধ্যম।’ উৎসবের প্রথম দিনে সন্মানিত অতিথি হিসেবে ছিলেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র জনাব সাঈদ খোকন, মুক্তিযোদ্ধা, আন্তর্জাতিক “ওয়ার্ল্ড মাস্টার” সনদপ্রাপ্ত লোকসংগীত শিল্পী ও গবেষক অধ্যাপক ইন্দ্রমোহন রাজবংশী এবং ঢাকা ব্যাংক-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং সিইও জনাব সৈয়দ মাহবুবুর রহমান।

প্রথম দিনে দর্শকরা উপভোগ করেন বাংলাদেশ থেকে বাউলিয়ানা, ফকির শাহবুদ্দিনের অসাধারণ পরিবেশনা। এছাড়াও দেশের বাইরের শিল্পী ব্রাজিল থেকে মোরিসিও টিযুমবা, তিব্বতের ফোক শিল্পী তেনজিন চো’য়েগাল ও পাপন গান শুনিয়ে শ্রোতাদের মুগ্ধ করেন।

এনএটি/রবি

Loading...