উলিপুরে মসজিদের ভিতরে ঈমামের মাথা ফাটালো কাউন্সিলর পুত্র, প্রতিবাদে মুসল্লিদের বিক্ষোভ

খালেক পারভেজ লালু, উলিপুর, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:

কুড়িগ্রামের উলিপুরে মসজিদের ভিতরে হামলা চালিয়ে ঈমামকে গুরুত্বর আহত করেছেন পৌর কাউন্সিলর পুত্র । হামলাকারী পালিয়ে যাওয়ার সময় মুসল্লিরা তাকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। ঘটনাটি ঘটেছে পৌর শহরের প্রান কেন্দ্রে অবস্থিত মসজিদুল হুদা মসজিদের ভিতরে। এ ঘটনায় এলাকার মুসল্লিদের মাঝে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

মুসল্লি ও মামলা সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার (১০ নভেম্বর) এশার নামাজের ইমামতী শেষ করে ঈমাম আলহাজ্ব মোঃ আনছার আলী (৪০) মসজিদ থেকে বের হওয়ার সময় পূর্ব থেকে মুসল্লী বেশে অবস্থান করা উলিপুর পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর আবুল কাশেমের পুত্র হিরা মিয়া (২২) মসজিদে ব্যবহৃত কাঠের সুতরা (কাঠের ফালা) দ্বারা তাকে পিছন থেকে মাথায় উপর্যুপরী আঘাত করলে তিনি জ্ঞান হারিয়ে মেঝেতে পড়ে যান।

এ সময় মুসল্লিরা হামলাকারীকে আটক করে পুলিশে সোর্পদ করেন। পরে মুসল্লিরা গুরুত্বর আহত ঈমামকে উদ্ধার করে উলিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য রাতেই কর্তব্যরত চিকিৎসক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করেন। এ ঘটনা ছড়িয়ে পড়লে উত্তেজিত মুসল্লিরা হামলাকারীর শাস্তির দাবিতে পৌর শহরে বিক্ষোভ মিছিল বের করে। মসজিদ কমিটির সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ দেলোয়ার হোসেন বাদী হয়ে রাতেই হামলাকারীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক হিরা মিয়ার কয়েকজন প্রতিবেশি জানান, সে কিছুটা মানুষীক রোগি।

উলিপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার রফিকুল ইসলাম সরদার সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, ঈমাম সাহেবের মাথায় আঘাত জনিত গভীর ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

উলিপুর থানার সেকেন্ড অফিসার নাসিরুল ইসলাম সময়ের কণ্ঠস্বরকে জানান, আটককৃত কাউন্সিলর পুত্রকে শনিবার (১১ নভেম্বর) আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এছাড়াও পৌরসভার জাইকা প্রকল্পের প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম ও মোটর সাইকেল ম্যাকানিক্স হাফিজুর রহমানকে মারপিট করে আহত করার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে পূর্বের দুইটি মামলা রয়েছে।