প্রসেনজিতের সঙ্গে একটি দৃশ্যে ঘনিষ্ঠ হতে গিয়ে নার্ভাস হয়েছিলাম: স্বস্তিকা

বিনোদন ডেস্ক, সময়ের কণ্ঠস্বর: আকাশ ছোঁয়া সাফল্যের পর ‘উমা বৌদি’র পেছনের গোপন রহস্য ফাঁস করলেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা। প্রতিদিন দুপুরে দেবরদের মনে উথাল-পাতাল সমুদ্র নিয়ে এসেছেন যে ‘উমা বৌদি’, যার অন্তরঙ্গতায় ‘নার্ভাস’ হচ্ছে উনিশ-কুড়ি, তিনি নিজেই নাকি নার্ভাস হয়েছিলেন বুম্বা দা’র সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হতে গিয়ে!

সম্প্রতি ভারতীয় এক গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নিজের কর্ম জীবনের অভিজ্ঞতার কথা বলতে গিয়ে স্বস্তিকা খোলাসা করলেন এমনই এক রোমাঞ্চকর এবং একই সঙ্গে অবিশ্বাস্য তথ্য।

বোল্ড সিনে ‘প্রো’ হিসেবে পরিচিত টলি তারকা স্বস্তিকা নাকি প্রসেনজিতের সঙ্গে একটি দৃশ্যে ঘনিষ্ঠ হতে গিয়ে নার্ভাস হয়েছিলেন।

সাক্ষাৎকারে স্বস্তিকা স্পস্টভাবে জানান, প্রথমবার বুম্বা দা’র সঙ্গে একটি ঘনিষ্ঠ দৃশ্যে অভিনয় করতে গিয়ে নার্ভাস হয়ে পড়েছিলাম। আমার সঙ্গে তার পূর্ব ঘনিষ্ঠতা থাকা সত্ত্বেও আমি ‘কম্পন’ অনুভব করেছিলাম। প্রসেনজিৎ একজন বিরাট তারকা, এটা ভেবেই আমার হাত-পা ঠাণ্ডা হয়ে গিয়েছিল।

একই সঙ্গে তিনি এও বলেন, নার্ভাসনেস কাটিয়ে দেওয়ার জন্য একজন সিনিয়রেরই সাহায্য করা উচিত।

এসভিএফ প্রযোজিত ওয়েব সিরিজ ‘দুপুর ঠাকুরপো’-তে অভিনয় প্রসঙ্গে স্বস্তিকা বলেন, সিনিয়রদের থেকে যা শিখেছি সেটা করার চেষ্টাই করেছি। প্রথমে নতুনরা একটু নার্ভাস ছিল, কিন্তু দুপুরের লাঞ্চ শেষেই সেটা কেটে গেছে।