ফুলবাড়ীতে দুই মাদক ব্যবসায়ীর আত্মসমর্পণ

মেহেদী হাসান উজ্জল, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি- দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে দুই মাদক ব্যবসায়ী মাদক ব্যবসা না করার অঙ্গীকার করে ফুলবাড়ী থানায় আত্মসমর্পণ করেছেন।

সোমবার বেলা ১২ টায় ফুলবাড়ী থানায় এসে তারা আত্মসমর্পণ করেন। এ সময় ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবিব-সহ পুলিশ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আত্মসমর্পণকারী মাদক ব্যবসায়ীরা হলেন, বারাই বোল্লা কালী মন্দীর পাড়ার অনিল চন্দ্র রায় এর স্ত্রী শ্যামলী রানী (৫০) ও তার ছেলে শ্রী বিপুল চন্দ্র রায় (২৮)।

জানাযায়, তারা মা ছেলে দীর্ঘদিন থেকে গাজাঁ বিক্রয় করে আসছিল স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে তারা নিজেই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে ।

মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় ফুলবাড়ীতে সাংবাদিককে হুমকী

দিনাজপুরের ফুলবাড়ীতে মাদক ব্যাবসায় বাধা প্রদান করায় সাংবাদিককে মাদক ব্যাবসায়ীর হুমকি প্রদান করা হয়েছে বলে থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন।

অভিযোগ সুত্রে জানাযায়, গত ১১ নভেম্বর শনিবার রাত ১০টায় ফুলবাড়ী মাছ বাজার সংলগ্ন চায়ের দোকানে ফুলবাড়ী থানা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদ মেহেদী হাসান উজ্জল ও তার সহকর্মী ফুলবাড়ী প্রেস ক্লাবের সভাপতি ইত্তেফাক প্রতিনিধি সিনিয়র সাংবাদিক প্রভাষক অমর চাঁদ গুপ্ত অপু ও আমাদের সময় প্রতিনিধি ও হিলিবার্তার বার্তা সম্পাদক ওয়াহিদুল ইসলাম ডিফেন্সসহ তারা সেখানে চা খাচ্ছিল।

জানাযায়, কাঁটাবাড়ী নয়াপাড়া গ্রামের মৃত অরফুদ্দীন মন্ডলের মেয়ে অকুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হাফিজা দীর্ঘদিন হতে মাদক ব্যবসা করায় ওই গ্রামের লোকজনসহ সাংবাদিক মেহেদী হাসান উজ্জল তার ব্যবসায় বাধা প্রদান করার সেই জের ধরে সে তার ভাতিজাকে দিয়ে এঘটনা ঘটিয়েছে।

হঠাৎ এ সময় কাঁটাবাড়ী নয়াপাড়া গ্রামের অকুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হাফিজা বেগমের ভাইয়ের ছেলে সোহেল আচমকা সেখানে এসে তার ফুপু হাফিজার মাদক ব্যাবসায় বাধা প্রদান করাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিক মেহেদী হাসান উজ্জলকে অকথ্য ভাষায় গালীগালাজ ও বিভিন্ন রকম হুমকী প্রদান করে শরীরে আঘাত হানার চেষ্টা করলে সে সময় আশপাশের লোকজন ছুটে এলে হাফিজা বেগমের ভাইয়ের ছেলে সোহেল পালিয়ে যায়।

এ ঘটনায় আজ সোমবার সাংবাদিক মেহেদী হাসান উজ্জল বাদী হয়ে ওই মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে ফুলবাড়ী থানার ওসি শেখ নাসিম হাবিব জানান, অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে । এদিকে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাংবাদিকদের মাঝে চরম ক্ষোভ বিরাজ করছে।

সময়ের কণ্ঠস্বর/রবি